বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : জমি জমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হুমকি ধামকিতে প্রায় ১ মাস যাবত কলেজে যেতে পারছেন না বগুড়া শাজাহানপুরের খরনা ইউনিয়নের একটি পরিবারের ৩ শিক্ষার্থী। চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন ওই পরিবারের সদস্যরা। রোববার বিকেলে বগুড়ার শাজাহানপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেছেন উপজেলার খরনা সরকারপাড়া গ্রামের মীর রায়হান ইকবাল তোতার স্ত্রী বিউটি আক্তার।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করা হয়, বিউটি আক্তার ও তার পুত্র আব্দুল্লাহ্ আল গালিব সুমন ক্রয়সূত্রে খরনা মৌজার সাবেক ২১৯৩ হালে ৪৪২৭ দাগের ৩১ শতকের কাতে ১৫ শতক জমির মালিক। যাহার দখল স্বত্ত্ব দক্ষিণ-পূর্ব ধার। গত ২৩ সেপ্টেম্বর’১৪ সালে রেজিষ্ট্রিকৃত ৭৫৮৪ নং দলিল মূলে মালিক হওয়ার পর থেকেই তারা জমিটির দখল ভোগ করে আসছেন। উক্ত জমিতে ১০-১২ বছর বয়সী বেলজিয়াম, আম, ইউক্যালিপ্টাস গাছ রয়েছে। জমিটি জবর দখল করতে প্রতিবেশী মৃত রমজান আলীর পুত্র মেহেদী হাসান ওরফে আলী আজম (৩২) গত ১৭ সেপ্টেম্বর’১৭ তারিখে বেলা আড়াইটার দিকে একদল সন্ত্রাসী নিয়ে জমিতে অনধিকার প্রবেশ করে এবং ১৫-২০টি গাছ কেটে ফেলে। গাছ কাটতে বাঁধা দিলে বিউটি আক্তারের স্বামী-সন্তানদের মারপিট করে। এ সময় প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা প্রাণ নামের হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায়। এ ঘটনায় শাজাহানপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েও কোন কাজ হয়নি।
অপরদিকে সন্ত্রাসীদের হুমকি ধামকিতে বিউটি আক্তারের পুত্র সরকারি শাহ্ সুলতান কলেজে আব্দুল্লাহ্ আল গলিব (সুমন), বড় মেয়ে সরকারি আযিযুল হক কলেজের ছাত্রী সুইটি খাতুন এবং ছোট মেয়ে সরকারি মজিবর রহমান মহিলা কলেজে স্মৃতি খাতুন প্রায় ১ মাস যাবত কলেজে যাতায়াত করতে পারছেন না। এছাড়া তার স্বামী মীর রায়হান ইকবাল তোতা ক্ষেত-খামার এবং হাট-বাজারে যাতায়াতের ক্ষেত্রে চরম নিরাপত্তহীনতায় ভূগছেন। এমতাবস্থায় জবর দখলের হাত থেকে সম্পত্তি রক্ষাসহ পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি, বগুড়া জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের নিকট আকুল আবেদন জানিয়েছেন ভূক্তভোগী ওই পরিবারের সদস্যরা।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন