বগুড়া সংবাদ ডটকম (শেরপুর সংবাদদাতা কামাল আহমেদ) : বগুড়ার শেরপুরে ট্রাকের বডিতে বক্স তৈরী করে অভিনব কায়দায় মাদক দ্রব্য পাচারের সময় পুলিশ পৌনে চার মণ (১৫০ কেজি ৭৫ প্যাকেট) গাঁজা সহ ২ জন আন্তঃজেলা মাদক চোরাকারবারী কে আটক করেছে। আটককৃতরা হলো- লক্ষীপুর জেলার রামগঞ্জ থানার দক্ষিণ কালিকাপুর গ্রামের মৃতঃ ওহিদুর রহমানের পুত্র হারুন ওরফে ফারুক হোসেন (২৫) ও একই গ্রামের কামাল হোসেনের পুত্র সোহাগ (৩০)। ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের স্বাীকারোক্তি মোতাবেক গত ১১ অক্টোবর বুধবার দিবাগত গভীর রাতে পুলিশ আটককৃত ট্রাকের বডিতে তৈরী করা বক্স থেকে গাঁজাগুলো উদ্ধার করে।
শেরপুর থানা সূত্রে জানা যায়, গত ১১ অক্টোবর বুধবার ভোর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মোঃ এরফানের নেতৃত্বে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বুলবুল ইসলাম, এস আই মোঃ আরিফ সহ একদল পুলিশ একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ম ১১-৩৬৬৯) ও ঐ দুই মাদক চোরাকারবারীকে আটক করে। ট্রাকটি আটকের পর পুলিশ দেখতে পায় ট্রাকটি খালি। ট্রাকের সাম্ভাব্য সকল যায়গা তল্লাশী করে কোন কিছু না পেয়ে হতাশ হয় পুলিশ। কিন্ত পুলিশের সোর্স নিশ্চিত করে ঐ ট্রাকেই বিপুল পরিমান মাদক মজুদ আছে। বুধবার গভীর রাতে পুলিশের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের মুখে তারা স্বীকার করে ঐ খালি ট্রাকের বডির পটাতনের নীচে বিশেষ কায়দায় প্রায় ১ ফুট উচ্চতা ও ট্রাকের আয়তনের সমান একটি বক্সে বিপুল পরিমান গাঁজা রয়েছে। পরে রাত আড়াইটার দিকে বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোনাতন চক্রবর্তীর উপস্থিতিতে আটককৃতরা ট্রাকের বডির নিচ থেকে বিশেষ কায়দায় লাগানো দুটি নাট-বোল্ট খুলে দিলে পাটাতনের নীচ থেকে গাঁজা গুলো উদ্ধার করা হয়। আটক কৃতরা জানায় তারা গাজীপুরের টঙ্গী হতে নাটোরে গাঁজাগুলো পৌছে দেয়ার জন্য যাচ্ছিল। তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন