বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট সংবাদদাতা ইমরান হোসেন ইমন) :বগুড়ার ধুনটে মসজিদের ইমাম কাজি মতিউর রহমান হত্যাকান্ডের এক বছরেও কোন কুলকিনারা হয়নি। এদিকে মামলার কোন কুলকিনারা না হলেও আসামীদের হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে নিহত ইমামের পরিবার।
থানাপুলিশ ও নিহতের পরিবারসূত্রে জানাগেছে, গোপালনগর ইউনিয়নের বলারবাড়ী গ্রামের মৃত মনছের আলীর ছেলে মতিউর রহমান বানিয়াগাঁতি গ্রামের বাজার জামে মসজিদে ইমামতি করতেন এবং বিবাহ নিবন্ধকের কাজ করতেন। গত বছরের ৩ জুলাই রাতে মসজিদে তারাবি নামাজের ইমামতি করে বাড়ী ফিরছিলেন মতিউর রহমান। কিন্তু পথিমধ্যে দূর্বত্তরা তাকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যা করে। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরন প্রেরন করে।
নিহত ইমামের স্ত্রী মর্জিনা বেগম জানান, ঘটনার পরদিন থানায় মামলা দায়ের করলেও আসামীদের কোন নাম অর্ন্তভুক্ত করা হয়নি। একারনে গত বছরের ৪ আগষ্ট বগুড়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে (৪) তিনি বাদী হয়ে ৬জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘ এক বছর পর হয়ে গেলেও মামলার কোন কুলকিনারা হচ্ছে না। আসামীরা জামিনে বের হয়ে এসে রীতিমতো মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি দিচ্ছে। তাই এ অবস্থায় আমরা পরিবার পরিজন নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি।
তবে এবিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) ফারুকুল ইসলাম বলেন, মামলা দায়েরের পর ৬জন আসামীকে গ্রেফতার করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে এবং মামলার তদন্ত কাজ চলছে। অতিদ্রুত মামলার চার্জসীট দেওয়া হবে। কিন্তু আসামীরা জামিনে বের হয়ে বাদীকে হুমকির বিষয়টি কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন