বগুড়া সংবাদ ডট কম : অবৈধ আওয়ামী বাকশাল সরকার মামলাবাজ সরকার হিসেবে ইতিমধ্যে বিশ্বে পরিচিতি লাভ করেছে মন্তব্য করে বগুড়া জেলা বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক জয়নাল আবেদিন চাঁন বলেছেন, ভোটার বিহীন এই সরকারের একটায় মিশন তা হলো বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গুম, খুন, আর মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে প্রেরণ করা। যাতে করে দেশে গনতন্ত্র’র পরিবর্তে বাকশাল কায়েম হয়। বিচার বিভাগ ধ্বংশ করার জন্য তারা প্রধান বিচারপতিকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে জোর করে ছুটিতে পাঠিয়েছে। নজিরবিহীন এ ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিশ^ দরবারে সরকার ব্যর্থ হয়েছে। সরকারের নানা অপকর্মের কারনেই তারা জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পরেছে। জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে দেশী-বিদেশী সকল ষড়যন্ত্র জনগন প্রতিহত করেছে আগামীতেও কোন ষড়যন্ত্র করে এ সরকার পার পাবেনা। অনতিবিলম্বে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াসহ জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে সকল রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে যুবদলের নেতৃত্বে রাজপথে কঠোর কর্মসুচি দিয়ে আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসুচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় বিএনপি দলীয় কার্যালয়ের সামনে বগুড়া জেলা যুবদলের আয়োজনে বিক্ষোভ সমাবশে প্রধান অতিথির বক্তব্য এসব কথা বলেন। সমাবশে সভাপতিত্ব করেন জেলা যুবদলের সভাপতি ও ১১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সিপার আল বখতিয়ার। বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল, সহ-সভাপতি একেএম আহসানুল তৈয়ব জাকির, মতিউর রহমান মতি, যুবদল নেতা সাজন, এসএম আলাল মোল্লা, কবির হোসেন, রঞ্জন দাস, সদর উপজেলা যুবদল সভাপতি রাফিউল ইসলাম রুবেল, আব্দুল বারী, শহর যুবদলের সিনিঃ নেতা জহুরুল ইসলাম ফুয়াদ, অধ্যক্ষ শাহীন, আনোয়ার হোসেন সান্টু, মহররম হোসেন টপিন, এম.এ হান্নান, শামীম, আঃ হালিম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আঃ জলিল, নজরুল ইসলাম, খান আলতাফ, রুহুল আমিন, মানিক, সুনাম, জনি, রনি খন্দকার, ইঞ্জিঃ জিয়াউল ইসলাম আপেল, খলিল, আঃ মান্নান, মিনার, মিনহাজ, সেলিম, রাজা, মাহবুব, পাশা, বাহাদুর, রোকন, কমরেড, সালাম, সিজু, সোবহান, রানা, সঞ্জয়, মিম, হাসান, মুন্না, বাপ্পী, বিপ্লব, আল আমিন, চেরু, কাকন, সম্পদসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। বিক্ষোভ সমাবেশে বগুড়া জেলা বিএনপির সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলাম, মাফতুন রুবেল, পিপলু, হিমু, হিরু, রফিকুল, হিরাসহ সকল রাজবন্দী নেতাদের অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন নেতৃবৃন্দ। খবর বিজ্ঞপ্তির।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন