বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনটের ছাত্রলীগ কর্মী চপল মাহমুদ শুক্কুরকে (২২) প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ সহ ৬জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। বুধবার রাতে ওই ছাত্রলীগ কর্মীর পিতা আব্দুল আজিজ শেখ বাদী হয়ে ধুনট থানায় মামলা দায়ের করেন।
মামলা ও স্থানীয়সূত্রে জানাগেছে, স্থানীয় এক ছাত্রীকে কতিপয় বখাটে যুবক দীঘদিন যাবত উত্ত্যাক্ত করে আসছিল। এবিষয়ে পূর্বভরনশাহী গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে ছাত্রলীগ কর্মী চপল মাহমুদ প্রতিবাদ করে। এরই জের ধরে গত রবিবার বিকাল সাড়ে ৫টায় ৬/৭জন দূর্বৃত্ত ধুনট বাজারের জিরোপয়েন্ট এলাকায় চপল মাহমুদ শুক্কুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শরীরের বিভিন্নস্থানে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে মূমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে নেওয়া হলে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এঘটনায় বুধবার রাতে ছাত্রলীগ কর্মীর পিতা আব্দুল আজিজ শেখ বাদী হয়ে পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক সেলিম রেজা রিমানকে প্রধান আসামী করে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ ও ছাত্রলীগ কর্মী রাব্বি সহ এজাহারভুক্ত ৬জন ও অজ্ঞাত ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন।
তবে এঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ বলেন, ঘটনার সময় আমার অসুস্থ মেয়ের চিকিৎসার জন্য স্ত্রীকে নিয়ে ধুনট হাসপাতালে ছিলাম। অথচ রাজনৈতিক প্রতিহিংসা মূলকভাবে আমাকে আসামী করা হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনা শোনার পর তাৎক্ষনিকভাবে সেলিম রেজা রিমানকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। এঘটনার সাথে কোনভাবেই আমার সম্পৃত্ততা নেই। কিন্তু তারপরও একটি মহল আমাকে রাজনৈতিকভাবে হেয়পতিপন্য করার চেষ্টা করছে। তবে তিনি এঘটনার সঠিক তদন্ত করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, ছাত্রলীগ কর্মীকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় ৬জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে এবং আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন