বগুড়া সংবাদ ডটকম : ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠ সরকারী আজিজুল হক বিশ^বিদ্যালয় কলেজ ক্যাম্পাস থেকে ৪ দফায় শতাধিক গাছ কর্তন করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন কলেজের প্রাক্তন ছাত্রনেতৃবৃন্দ। ২০১৫ সালের এপ্রিল মাস, চলতি বছরের আগস্ট মাস, সেপ্টেম্বর মাসসহ বিভিন্ন সময়ে গাছগুলো কেটে ফেলা বিষয়ে কলেজ প্রশাসন তাৎক্ষনিক কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমান অধ্যক্ষ কলেজে যোগদানের পর থেকেই বিভিন্ন সময়ে কলেজের মূল ভবনের সামনে গোল চত্বর, লাইব্রেরী, ছাত্র সংসদ ভবন, মসজিদ সংলগ্ন, অধ্যক্ষের বাসভবন, রোকেয়া হলসহ ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থান থেকে বিনা কারণে বিশাল আকৃতির সেগুন, মেহগুনি, বেলজিয়াম সহ অন্যান্য মূল্যবান গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। ৩০ থেকে ৩৫ বছর বয়সী এসব গাছ কর্তন বিষয়ে দেশের জাতীয় দৈনিকসহ স্থানীয় পত্রিকা, গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সচিত্র সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। ব্যক্তিস্বার্থে এসব গাছ কেটে যেমন কলেজের সৌন্দর্য বিনস্ট করা হয়েছে তেমনি পরিবেশেরও ক্ষতি করা হয়েছে। কলেজের সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য সবুজ ক্যাম্পাস গড়ে তোলার লক্ষ্যে বিগত সময়ে অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ এবং ছাত্রসংসদের নেতৃবৃন্দসহ ছাত্রনেতারা কলেজে বৃক্ষ রোপন করেছিল। উত্তরজনপদের মধ্যে অন্যতম এই বিদ্যাপিঠ সবুজে শ্যামলে ঘেরা। অথচ বর্তমান অধ্যক্ষ যোগদানের পর থেকেই বৃক্ষ নিধনে নেমেছেন। তার এহেন কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে শতাধিক গাছ কর্তন বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের তদন্ত কমিটি গঠন করে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন সাবেক নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার রাত ৮টায় বগুড়া শহরের সাতমাথাস্থ জেলা ছাত্র ইউনিয়ন কার্যালয়ে এক সভায় এ দাবী জানানো হয়। সরকারী আজিজুল হক কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি ও জিএস এড. ইমদাদুল হক ইমদাদের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন কলেজের সাবেক নেতা অধ্যক্ষ শাহাদৎ আলম ঝুনু, ফিরোজ হামিদ খান রেজভী, শান্ত মাহমুদ, মিজানুর রহমান বাবু, আব্দুর রাজ্জাক দুদু, আনোয়ার পারভেজ রুবন, দীপেশ চন্দ্র প্রাং, আমিনুল ইসলাম ডাবলু, আলমগীর শাহী সুমন, রবীন্দ্রনাথ দাস রঞ্জন, সিদ্দিকুল আলম মামুন, আতিকুজ্জামান তুহিন, আব্দুস সালাম বাবু, কামরুল হুদা উজ্জল, কাওছার হামিদ রুবেল প্রমুখ। সভায় বক্তারা কলেজ অধ্যক্ষ কর্তৃক লোক দেখানো তদন্ত কমিটি প্রত্যাখান করে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের তদন্ত কমিটি গঠনের জোর দাবী জানান। কলেজের স্বার্থ সংরক্ষনে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের ছাত্র সংগঠগুলোর জেলা ও কলেজ পর্যায়ের নেতৃবৃন্দদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের আহবান জানানো হয়। এছাড়া আগামী শনিবার পরবর্তী সভা বিকেল ৫ টায় জেলা ছাত্র ইউনিয়ন কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। এতে সাবেক ছাত্র নেতৃবৃন্দদের উপস্থিত হওয়ার জন্য আহবান জানানো হয়।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন