বগুড়া সংবাদ ডটকম (শিবগঞ্জ প্রতিনিধি রশিদুর রহমান রানা) : বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়নের আমতলি বন্দরে অবস্থিত হাজী মার্কেটে আগুন লেগে বাড়ি সহ ৮টি দোকানে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে, এতে প্রায় কোটি টাকার ক্ষতিসাধনের খবর পাওয়া গেছে।
জানাযায়, মঙ্গলবার গভীর রাতে আমতলি বন্দরের হাজী মার্কেটে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। দীর্ঘক্ষণ আগুন লাগার একপর্যায়ে ঢাকা-জয়পুরহাটগামী একটি যাত্রীবাহি বাসে আরোহী যাত্রীরা অগ্নিকান্ডের ঘটনা দেখলে তারা বাস থেকে নেমে চিৎকার করতে থাকে। তাদের চিৎকারে আমতলি বন্দরের বিভিন্ন ব্যবসায়ীসহ এলাকাবাসীরা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। ততক্ষণে বাড়ির আসবাবপত্র ও মূল্যবান জিনিসপত্র সহ ৮টি দোকানের যাবতীয় মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ দোকানগুলোর মধ্যে আহম্মদ আলীর বেকারির, মাসুদুর রহমানের কনফেকশনারি দোকান, সিজু মিয়ার কম্পিউটার ও ফটোকপি, আতাহারের কসমেটিক্স, শ্রী বিধানের ঔষুধের দোকান, আলী আজমের ব্যাগ হাউস, সোহেল রানার ক্লথ ষ্টোর ও আব্দুল মাজেদের ক্লোথ ষ্টরের যাবতীয় মালামাল পুড়ে ছাই হয়। স্থানীয় এলাকাবাসী ও দোকান মালিকদের কাছে আগুন লাগার কারণ জানতে চাইলে তারা অভিযোগ করে বলেন, মালিকের সাথে প্রতিপক্ষের জের থাকায় প্রতিপক্ষরা রাতের আধারে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। আমরা এর তদন্ত ও বিচার চাই। বাড়ির মালিক ফরিদ উদ্দিন বলেন, আমাদের এ জায়গা নিয়ে মামলা থাকায় প্রতিপক্ষরা ক্ষিপ্ত হয়ে শত্রুতামূলক ভাবে আগুন লাগিয়েছে। এতে আমার ঘরের আসবাবপত্র ও নগদ টাকা সহ প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে। সকালে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাওলানা আলমগীর হুসাইন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলমগীর কবির ও ইউপি চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদ সাবু ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তোফায়েল আহম্মেদের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, ক্ষতিগ্রস্থদের নামের তালিকা ও ক্ষতির পরিমাণ ইউএনও’র কাছে প্রেরণ করেছি।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন