বগুড়া সংবাদ ডট কম :  সেপ্টেম্বর মাসে দেশের সামগ্রিক মানবাধিকার পরিস্থিতির ইতিবাচক কোন পরিবর্তন হয়নি বলে মনে করে দেশের অন্যতম মানবাধিকার প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা। সংস্থার মাসিক পর্যবেক্ষণ ও গবেষণার মাধ্যমে আগষ্ট মাসের এ চিত্র সামনে আসে। পারিবারিক ও সামাজিক নৃসংশতার বিষয়টি দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে যা উদ্বেগজনক। এছাড়াও শিশু হত্যা, শিশু ধর্ষণ, গণ ধর্ষণ,পারিবারিক ও সামাজিক কোন্দলে আাহত ও নিহত, নারী নির্যাতন, রাজনৈতিক সহিংসতার ঘটনাগুলি ছিল উল্লেখযোগ্য এ মাসে।

বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার সেপ্টেম্বর মাসের মনিটরিং-এ পাওয়া তথ্য-উপাত্ত থেকে দেখা যায়:

ধর্ষণ ঃ সেপ্টেম্বর মাসে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ১২৪ জন নারী ও শিশু । এদের মধ্যে শিশু ৬১ জন। ৪৫ জন নারী। ১৫ জন নারী গণ ধর্ষণের শিকার হন ও ৩ জনকে ধর্ষনের পর হত্যা করা হয়। গাজীপুরে ১৩ বছরের এক কিশোরীকে বিয়ে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। রাজধানীতে ৭০ বছরের এক বৃদ্ধ ধর্ষণ করেছে ১০ বছরের এক শিশুকে। ঢাকা , চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে ধর্ষণের ঘটনা বেশী।

আত্মহত্যা ঃ সেপ্টেম্বর মাসে সারা দেশে আত্মহত্যা করেছে ৬ ৮ জন । এদের মধ্যে ২৩ জন পুরুষ ও ৪৫ জন নারী । পারিবারিক দ্বন্দ্ব, প্রেমে ব্যর্থতা, অভিমান, রাগ ও যৌন হয়রানী, পরীক্ষায় খারাপ ফলের কারনে এসকল আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে । ঢাকা বিভাগে আত্মহত্যার ঘটনা সবচেয়ে বেশী। এর মধ্যে ঢাকা, ফরিদপুর ও নারায়নগঞ্জে আত্মহত্যার হার বেশী।

শিশু হত্যা ঃ সেপ্টেম্বর মাসে ২৩ শিশুকে হত্যা করা হয় । গাজীপুরে চুরির অভিযোগ এনে এক কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা কার হয়। সিলেটে ৭ বছরের এক শিশুকে গলা টিপে হত্যা করে সৎ মা। ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগে শিশু হত্যার সংখ্যা বেশী।

পারিবারিক কলহঃ পারিবারিক কলহে সেপ্টেম্বর মাসে নিহত হন ৫০ জন, এদের মধ্যে পুরুষ ১২ জন ,নারী ৩৮ জন।। এদের মধ্যে স্বামীর হাতে নিহত হন ২৭ জন নারী। আর স্ত্রীর হাতে নিহত হন ৪ জন স্বামী । পারিবারিক সদস্যদের মধ্যে দ্বন্ধ, রাগ, পরকীয়া সহ বিভিন্ন পারিবারিক কারনে এই সব মৃত্যু সংগঠিত হয় বলে জানা গেছে। নারায়ণগঞ্জে শিরিন আক্তার নামে এক গৃহবধূকে শ্বসরোধ করে হত্যা করে স্বামী।

সামাজিক অসন্তোষ ঃ সামাজিক অসন্তোষের শিকার হয়ে এই মাসে নিহত হয়েছেন ৯ জন ! আহত হয়েছেন ৪৯০ জন। সামাজিক সহিংসতায় আহত ও নিহতের ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে । টঙ্গীতে জমি নিয়ে বিরোধের জেড়ে দুই জনকে কুপিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষরা। সুনামগঞ্জে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ২ জন নিহত ও ২০ জন হন।

খুন ঃ সেপ্টেম্বর মাসে দেশে সন্ত্রাসী কর্তৃক নিহত হন ৭২ জন । এ মাসে ভোলায় ব্র্যাকের একজন কর্মসূচী সংগঠককে শ্বসরোধে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা । সিরাজগঞ্জে এক ব্যাবসায়ীকে দিনে দুপুরে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

অন্যান্য সহিংসতার ঘটনা- সেপ্টেম্বর মাসে মাদকের প্রভাবে বিভিন্ন ভাবে নিহতের সংখ্যা ৩ জন, আহত হয় ১ জন। পানিতে ডুবে, অসাবধানবশত, বিদ্যুৎপৃস্ট হয়ে, বজ্রপাতে, মৃত্যুবরন করেছে ৯৫ জন। গণপিটুনিতে নিহত হয় ৮ জন, আহত ২। সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ২০৫ জন, আহত ৪৩৪ জন। চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু হয় ৬ জনের। রাজনৈতিক সহিংসতায় আহত হয় ১২৬ জন যার অধিকাংশ ঘটনা সরকারী দলের আন্তকলহের জেরে। অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার হয়েছে ২০ টি। জঙ্গি ও সন্ত্রাসী দমন অভিযানে গনগ্রেফতার করা হয় ৩১৪ জনকে।

(তথ্য সুত্রঃ সেপ্টেম্বর ২০১৭ মাসে দেশে প্রকাশিত বিভিন্ন দৈনিক পত্র-পত্রিকা এবং সংস্থার বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও পৌরসভা শাখার মাধ্যমে সংগৃহিত তথ্য। এর বাইরেও মানবাধিকার লংঘন জনিত কিছু ঘটনা থাকতে পারে যা আমাদের সীমাবদ্ধতার কারনে সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি)


Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন