বগুড়া সংবাদ ডট কম (শিবগঞ্জ প্রতিনিধি রশিদুর রহমান রানা) : বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার গড়- মহাস্থান পূর্বপাড়া গ্রামে পারিবারিক কলহের জেরে মনের ক্ষোভে ১০ শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় সে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে বসতঘরের তীরের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করে। সে গড় মহাস্থান পূর্বপাড়া গ্রামের আইনুর ইসলামের মেয়ে জান্নাতি আক্তার (২০)। এবং স্থানীয় মহাস্থান উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০শ্রেণীর ছাত্রী। তার পাশের গ্রামে আফজল হোসের ছেলে রাজুর সাথে বিয়ে হয়েছে বলে এলাকাবাসী জানায়। বিয়ের পর থেকে জান্নাতি বাবার বাড়িতেই থাকত। এদিকে খবর পেয়ে শিবগঞ্জ থানার এসআই নজরুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স সহ বিকেল ৪টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালে নেওয়ার পথে এলাকাবাসী লাশ নিয়ে যেতে বাধাঁ দেয়। শুরু হয় পুলিশ ও এলাকাবাসীদের মাঝে চরম উত্তেজনা। এরপর শিবগঞ্জ থানার অপর একটি ফোর্স এসে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসীদের ধাওয়া দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে লাশ থানায় নিয়ে যায়। এবিষয়ে তদন্তকারী এসআই নজরুল ইসলামের সাথে কথা বললে, তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পরিবারের বরাত দিয়ে জানান, উপজেলার গড়-মহাস্থান আইনুর ইসলামের মেয়ে বৃহস্পতিবার বিকালে সে কাউকে কিছু না বলে বসতঘরে ঢুকে তীরের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। কিছুক্ষণ পর তার মা ঘরে এসে মেয়েকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে চিৎকার শুরু করলে আশপাশের লোকজন এসে তাকে মাটিতে নামিয়ে নেয়। আত্মহত্যার কোন কারণ জানা যায়নি উল্লেখ করে এসআই কাজী নজরুল ইসলাম বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে নিহতের কারণ জানা যাবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন