বগুড়া সংবাদ ডট কম (নন্দীগ্রাম প্রতিনিধি মো: ফিরোজ কামাল ফারুক) : সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বাংলাদেশি বেলাল হোসেনের (৩৮) বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। প্রিয়জনকে হারিয়ে দিশেহারা তার পরিবারের সদস্যরা। বেলাল ছিল তাদের পরিবারে একমাত্র আয়ের উৎস। তার মৃত্যুতে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে দুই সন্তানদের ভবিষৎ।
রবিবার সকালে বেলালের গ্রামের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, নিহতের স্ত্রী ও মা আহাজারি করছেন। এ পরিবারের অন্য সদস্যরাও শোকাহত। বেলালের নিহত হওয়ার খবরে তার বাড়িতে এসে ভিড় করেছেন পাড়া-প্রতিবেশীরা।
নিহত বেলাল হোসেন সৌদি আরবের মক্কা শহরের একটি কোম্পানিতে রোড ক্লিনার শ্রমিক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। প্রতিদিনের ন্যায় গত ১০ জানুয়ারী সকালে কাজে যোগ দিতে যাওয়ার সময় এ দূর্ঘটনা ঘটে।
সে বগুড়া জেলার নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নের কুমচা গ্রামের মৃত মোতালেব হোসেনর ছেলে। তার দুই ছেলে। বড় ছেলের বয়স ৭ বছর, ছোট ছেলের বয়স ১ বছর। তার এ অকাল মৃত্যুতে শোকে পাথর হয়ে গেছে গোটা পরিবার। পরিবারের একমাত্র চালিকা শক্তিকে হারিয়ে সবাই এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে।
নিহতের চাচা আব্দুল মান্নান জানান, ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে বেলাল সৌদি আরবে যান। এক বছর পেরুতেই সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন তিনি। এছাড়া তারা আরও জানান, রবিবার আইনি প্রক্রিয়া শেষে সৌদি আরবেই বেলাল হোসেনরে লাশ দাফন করার সম্ভাবনা রয়েছে।
উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ সৌদি আরবে সড়ক দূর্ঘটনায় বেলাল হোসেনের নিহত’র বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তার এ অকাল মৃত্যুতে আমরা শোকাহত। এঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন