বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনট পৌর এলাকার পূর্বভরনশাহী গ্রামের ইছামতি নদীর তীরে আখেরী মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হলো তাবলিক জামাতের প্রথম দফার আঞ্চলিক বিশ্ব ইজতেমা। আল্লাহ্র দরবারে গুনাহ্ মাফ চেয়ে শনিবার সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন ঢাকার কাকরাইল মসজিদের মুরব্বী মাওলানা ফারুক সাহেব। দীর্ঘ ১৪ মিনিটের মোনাজাতের সময় লাখো ধর্মপ্রান মুসল্লির কান্না ও আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে ওঠে ইজতেমা ময়দান।
ইজতেমার আয়োজন কমিটির সদস্য মুফতি খোরশেদ আলম জানান, গত বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজ আদায়ের পর বগুড়া মার্কাস মসজিদের মুরব্বী মুফতি মাওলানা আলাউদ্দিন সাহেবের উদ্বোধনী আম বয়ানের মধ্য দিয়ে তিন দিনের ইজতেমা শুরু হয়। ইজতেমা শুরুর এক দিন আগে থেকেই মুসল্লিদের ঢল নামে। কানায় কানায় পূর্ণ হয় ইজতেমা ময়দান। ইজতেমায় চাঁদ, জর্ডান, মরক্ক ও তিউনিশিয়া সহ ৬/৭টি বিদেশী জামাত ছাড়াও দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা থেকে লাখো ধর্মপ্রাণ মুসল্লিগণ অংশ গ্রহন করেন। শনিবার আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে স্থানীয় সংসদ সদস্য, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা কর্মী, সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারী সহ আশপাশ এলাকার ধর্মপ্রান মানুষ অংশ নেন। ইজতেমা ময়দানের আশপাশের বাড়ীঘর গুলোতে হাজারো মহিলারা অবস্থান নিয়ে আখেরী মোনাজাতে শরিক হন। আখেরী মোনাজাতের পূর্বে হেদায়েতের বয়ান করেন মাওলানা আব্দুল মতিন সাহেব। তিনি তার বয়ানে ঈমান ও আমল মজবুত করতে মুসল্লিগনকে হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর সুন্নত ও আদর্শ নিয়ে আল্লাহ্র রাস্তায় বের হওয়ার আহবান জানান। সেই সাথে তিনি কোরআন ও হাদিস অনুযায়ী দ্বিন ও ইসলামকে কায়েম করতে দাওয়াত দেন।
ইজতেমার আয়োজক কমিটির নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, টঙ্গির বিশ্ব ইজতেমা সফল করতে ঢাকার কাকরাইল মসজিদের তত্বাবধায়নে ধুনট উপজেলার সরুগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে সর্বশেষ ২০১৭ সালের ১৩, ১৪ ও ১৫ ডিসেম্বর ৪১তম বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু সম্প্রতি টঙ্গির বিশ্ব ইজতেমাকে কেন্দ্র করে আয়োজন কমিটির কেন্দ্রীয় বিভক্তির কারনে এবছর নতুন করে ধুনট পৌর এলাকার পূর্বভরনশাহী গ্রামের ইছামতি নদীর তীরে পৃথকভাবে প্রথম দফা ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দ্বিতীয় দফার ইজতেমা আগামী ১৭ জানুয়ারী থেকে তিন দিন ব্যাপী ধুনটের সরুগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে।
ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ধুনট পৌর এলাকায় প্রথম দফা ইজতেমার সমাপ্তি হয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন