bograsangbad_Logoবগুড়া সংবাদ ডট কম (আদমদীঘি প্রতিনিধি সাগর খান) : বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার জয়দেবপুরপাড়া গ্রামে ফেরদৌসি বেগম (২৪) নামের এক গৃহবধুকে হত্যাকারি স্বামী আল আমিনের ফাঁসির দাবীতে বুধবার সকালে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে গ্রামের হাজারো নারী-পুরুষ। মৃত্যুর ৬দিন পর বুধবার দাফন করা হয়েছে স্বামীর নির্যাতনে নিহত এক সন্তানের মা ফেরদৌসি বেগমকে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ মিলেছে যে, শুক্রবার স্ত্রী ফেরদৌসিকে হত্যার পর বাড়ির পাশের মুরগী সেডে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে মৃত্যু হয়েছে বলে প্রকৃত ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে ঘাতক স্বামী আল আমিন। মৃত্যুর প্রাথমিক কারণ রহস্যজনক মনে হওয়ায় পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া মর্গে পাঠায়। নিরীহ গৃহবধু ফেরদৌসিকে হত্যা ও প্রকৃত ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার অপচেষ্টার ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসে উঠে ওই গ্রামসহ আশপাশের গ্রামের নারী-পুরুষ। তারা ঘাতক আল আমিনের খামারের মুরগী ও পুকুরের মাছ লুট করে। বুধবার বেলা ১১টায় নামাজে জানাজার পুর্বে শিববাটি বাজারে সমবেত হয় হাজারো বিক্ষুদ্ধ নারী-পুরুষ। তারা বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করে। ওই কর্মসুচি থেকে পরকিয়ায় আশক্ত খুনি স্বামী আল আমিনের ফাঁসি দাবী করা হয়েছে। জানা গেছে, আদমদীঘি উপজেলার কুন্দুগ্রাম ইউনিয়নের তিলোচ সিতাহার পাড়ার বাসিন্দা সৌদি প্রবাসী বিদ্যুত আলী খানের মেয়ে ফেরদৌসি বেগমের ৬ বছর পূর্বে একই এলাকার জয়দেবপুর পাড়ার জামাল উদ্দিন আকন্দের ছেলে আল আমিনের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর ফেরদৌসি জানতে পারে স্বামী আল আমিন পরকিয়ায় আসক্ত। স্বামীর সেই পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় তাদের বিয়ে বিচ্ছেদের ঘটনা ঘটে। এর ৫ মাস পর সমঝোতার মাধ্যমে ফের ফেরদৌসি বেগমকে বিয়ে করে আল আমিন। এ অবস্থায় শুক্রবার ফেরদৌসি বেগমের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে নিহতের চাচা শেরেকুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানায়, স্বামীর পরকিয়ায় বাধা দেয়ায় প্রায়ই তার ভাতিজীকে শারিরীক নির্যাতন করা হতো। এরই ধারাবাহিকতায় তার ভাতিজীকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে বলে তিনি দাবী করেছেন। এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্য শওকত কবির বলেন, ময়না তদন্তের পর লাশ গ্রামে এসেছে কিনা তা তিনি জানেন না এবং বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসুচি পালনের খবরও তাঁকে কেউ জানায়নি বলে জানিয়েছেন।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন