বগুড়া সংবাদ ডট কম (নন্দীগ্রাম প্রতিনিধি মো: ফিরোজ কামাল ফারুক) : আসন্ন নির্বাচনের প্রচার শেষ হলেও উত্তাপ কমেনি। যে কারনে নন্দীগ্রাম উপজেলার ভোটারদের মধ্যে এক ধরণের ভীতি কাজ করছে। এরই মধ্যে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলা আওয়ামী লীগ জরুরি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও জেলা পরিষদের কাউন্সিলর এবং নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সমন্বয়কারী আনোয়ার হোসেন রানা সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, বিএনপি প্রার্থী মোশারফ হোসেনের লোকজন গত ২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগ নেতা কর্মীদের ওপর ককটেল, পেট্রোলবোমা হামলা, মোটরসাইকেল পুড়িয়ে সন্ত্রাসের সূচনা করে। এরপরেও বিভিন্ন সময় সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের নিয়ে নন্দীগ্রাম উপজেলায় শো-ডাউন দেওয়ার চেষ্টা করেছে। কিন্তু নন্দীগ্রাম থানা পুলিশের তৎপরতার কারণে সেগুলো ভেস্তে যায়। বর্তমান পরিস্থিতিতে নৌকা মার্কা রেকর্ড সংখ্যক ভোট পেয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করতে যাচ্ছে এমন খবরে বিএনপি প্রার্থী মোশারফ হোসেন বেসামাল হয়ে পড়েছে। যে কারণে ভাড়াটিয়া অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী দিয়ে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে সাধারণ ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। সর্বশেষ হাটকড়ই বাজারে বোমা, জিহাদী বই ও অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনা সাধারন মানুষদের ভাবিয়ে তুলেছে। সংবাদ সম্মেলনে আনোয়ার হোসেন রানা প্রশাসনের উদ্দেশ্যে বলেন, অবিলম্বে বিএনপি প্রার্থীর ভাড়াটিয়া সন্তাসীদের গ্রেফতার করুন। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে পাহারাদার হিসেবে উপস্থিত থাকবে। যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য আওয়ামী লীগই যথেষ্ট। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক আনিছুর রহমান, আ’লীগ নেতা আনিছুর রহমান, মুকুল হোসেন, মোরশেদুল বারী, সোহেল রানা, রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ, গোলাম মোস্তফা, মখলেছুর রহমান, পৌর শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক সানোয়ার হোসেন মিলন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আনন্দ কুমার, কামরুল হাসান সবুজ, ছাত্রলীগের আহবায়ক তুহিন আহমেদ, যুগ্ম-আহবায়ক আবু তৌহিদ রাজিব প্রমূখ।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন