বগুড়া সংবাদ ডটকম (আনোয়ার হোসেন, নামুজা প্রতিনিধি) : বগুড়া সদরের নামুজা ভান্ডারী পাড়া গ্রামে কাপিয়া ও মেয়ে আয়েশা হত্যার ঘটনায় আদালতে ৩ জনের নামে চার্জসিট দাখিল করা হয়েছে। চার্জসিটে উল্লেখিত আসামীরা হলো, বগুড়া সদর উপজেলার নামুজা ইউনিয়নের ভান্ডারী পাড়া গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের পুত্র মোঃ রেজাউল করিম (৩৬), ইছাহাক ওরফে ইছা প্রামানিকের পুত্র মোঃ লিটন (৩২) ও তোজাম সাকিদারের পুত্র মোঃ ইউসুব আলী (৩৮)। এদের মধ্যে এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত আসামী রেজাউল ও লিটন ওই মামলায় বগুড়া জেলা কারাগারে থাকলেও আসামী মোঃ ইউসুব আলীকে পুলিশ এখন পর্যন্ত আটক করতে পারেনি। আসামীদের বিরুদ্ধে ধারা-৪৪৯/৩০২/৩৮০/৩৪ দন্ডবিধি। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ আছলাম আলী ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) ডিবি, বগুড়া। মামলার বাদী মোঃ আব্দুল মমিন এজাহারে উল্লেখ করেন যে, গত ২৮/০৮/২০১৭ রাত্রী অনুমান ১০টায় বাদীর বোন ও তার মেয়ে মৃত দবির মাষ্টারের বাড়ীতে থাকা কোয়াটারের রশিদের ঘরে খাওয়া দাওয়া শেষে হাফিজার মাষ্টারের বাড়ীতে আসিয়া অন্যান্য দিনের ন্যায় ঘুমিয়ে পড়ে গত ২৯/৮/২০১৭ তারিখ বেলা সাড়ে ৫টা পর্যন্ত বাদীর বোন ও তার মেয়ের কোন সাড়া শব্দ না পাইয়া প্রতিবেশি লোকজনসহ দরজা ভেঙ্গে শয়ন ঘরে প্রবেশ করিয়া খাটের উপর বাদীর বোন ও তাহার মেয়ের গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরুদ্ধ করিয়া হত্যা করা লাশ দেখতে পায়। ঘটনার বিষয় বগুড়া সদর থানার পুলিশকে সংবাদ দেয়। পুলিশ সংবাদ পাইয়া তাৎক্ষনিক ঘটানাস্থল পৌছে বাদীর বোন ও তার মেয়ের লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করিয়া ময়না তদন্তের জন্য শজিমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন। উল্লেখ্য আসামী রেজাউল করিম বিজ্ঞ আদালতে হাজির হইয়া হত্যার দায় ফৌঃ কাঃ বিঃ ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেয়।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন