বগুড়া সংবাদ ডট কম (আদমদীঘি প্রতিনিধি সাগর খান) : বগুড়ার আদমদীঘির চাঁপাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক ও মন্দিরপুকুর গ্রামের সখিন উদ্দীন সরদারের ছেলে নজরুল ইসলাম (৫৫) কে গলা কেটে হত্যার রহস্য উদঘাটন হয়েছে। মানিক ওরফে হান্নান কে গ্রেফতার করার পর এই হত্যার রহস্য উদঘাটন হয়। মানিক ওরফে হান্নানের তথ্য মোতাবেক সোমবার দুপুরে (আদমদীঘি-দুপচাঁচিয়া) সার্কেল আলমগীর রহমান, ওসি মনিরুল ইসলাম ও মামলার তদন্তকারী অফিসার আব্দুর রাজ্জাক অভিযান চালিয়ে মোবাইল ফোন ও হত্যার কাজে ব্যবহৃত লাঠি উদ্ধার করেছে।
আদমদীঘি থানার ওসি মনিরুল ইসলাম জানায়, আদমদীঘির চাঁপাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক ও মন্দিরপুকুর গ্রামের সখিন সরদারের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী নজরুল ইসলামের সাথে বাহাদুরপুর গ্রামের আফাজ উদ্দীনের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী আইয়ুব হোসেনের মাদক ব্যবসা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। আইয়ুব আলী ইয়াবা কিনতে চেয়ে গত ১৫ নভেম্বর সন্ধায় মোবাইল ফোনে নজরুল কে ডেকে নেয়। নজরুল ইসলাম ইয়াবা ট্যাবলেট দেয়ার জন্য ধান ক্ষেতের মধ্যে গেলে কোন কিছু বুঝে উঠার আগে আইয়ুব আলী তার ভাই বক্কর ও মানিক ওরফে হান্নান পিছন থেকে লাঠি দিয়ে নজরুলের মাথায় আঘাত করে মাটিতে ফেলে গলা কেটে হত্যা করে। পরের দিন সকালে স্থানীয়রা লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহতের ছোট ভাই শাহজাহান বাদী হয়ে অজ্ঞাত নামা উল্লেখ করে আদমদীঘি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ গত রবিবার মানিক কে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে মানিকের দেওয়া তথ্য মোতাবেক নজরুলের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন আইয়ুব আলীর টয়লেট থেকে হত্যা করার ব্যবহৃত লাঠি উদ্ধার করেন।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন