বগুড়া সংবাদ ডট কম : বগুড়া পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট এর আয়োজনে ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং এর শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ‘স্কিলস কম্পিটিশন ২০১৮’ এর আঞ্চলিক পর্ব অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বগুড়ার শহীদ টিটু মিলনায়তন চত্বরে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার, বিশ্ব ব্যাংক এবং কানাডার আর্থিক সহায়তায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণার্ধীন কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতায় বাস্তবায়নাধীন ‘স্কিলস এ্যান্ড ট্রেনিং এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট (এসটিইপি) এর উদ্যোগে এই স্কিলস কম্পিটিশনের আয়োজন করা হয়। এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ। বগুড়া পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মোঃ শাহাদৎ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) মোঃ জাহাঙ্গীর আলম।প্রধান অতিথি বলেন, এসডিজি বাস্তবায়নে কারিগরি শিক্ষার ভূমিকা অপরিসীম। তিনি কারিগরি শিক্ষায় এ ধরনের উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান। এ ধরনের কম্পিটিশন দেশের কারিগরি শিক্ষার শিক্ষার্থীদের মেধা ও মননশীলতা বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সেমিনারে “টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে কারিগরি, বৃত্তিমূলক শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ-প্রেক্ষিত বাংলাদেশ” বিষয়ক পেপার উপস্থাপন করেন বগুড়া পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মোঃ শাহাদৎ হোসেন। এ পেপারে তিনি দেশের কারিগরি শিক্ষার সার্বিক চিত্র তুলে ধরেন এবং এর চ্যালেঞ্জ ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় করনীয় বিষয়ে আলোকপাত করেন।অনুষ্ঠানে এই অঞ্চলের নির্বাচিত ১২টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, ছাত্র/ছাত্রী, অভিভাবক, স্থানীয় উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা ও গন্যমান্য ব্যক্তি, শিল্পকারখানার মালিক ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব উপস্থিত ছিলেন। প্রতিযোগিতায় ১২টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবিত ৩৫টি প্রকল্প মূল্যায়নের জন্য উপস্থাপন করা হয়।প্রদর্শিত উদ্ভাবন/প্রকল্পগুলো থেকে দেশ, সময় ও বর্তমান বাজারের চাহিদার প্রেক্ষিত বিবেচনায় রেখে মেধা, মনন, উদ্ভাবন ও সৃজনশীলতার ভিত্তিতে ৪টি উদ্ভাবন/প্রকল্প সেরা হিসেবে নির্বাচিত হয়। নির্বাচিত এই ৪টি উদ্ভাবন/প্রকল্প আগামী বছরের এপ্রিল মাসে ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অন্যান্য উদ্ভাবন/প্রকল্পের সহিত মূল্যায়নের জন্য উপস্থাপন করা হবে। এর আগে সকালে বগুড়া পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট এর সামনে থেকে এক র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন