বগুড়া সংবাদ ডট কম (রাহেনূর ইসলাম স্বাধীন, সারিয়াকান্দি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ  বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে বেসরকারি পলিটেকনিক্যাল “বগুড়া ইন্সটিটিউট অব ইনফরমেশন টেকনোলজি” (বিট) কলেজের টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং শাখার চতুর্থ বর্ষের ছাত্র নাঈম ইসলাম (২০) কে গোলা কেটে হত্যার পর আগুনে পুড়িয়েছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার সকালে সারিয়াকান্দি থানা পুুলিশ লাশটি উদ্ধার করে দুপুরে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শজিমেক হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহত নাঈম গাবতলী উপজেলার মহিষাবান ইউনিয়নের গোলাবাড়ী (মড়িয়া) গ্রামের স্বর্ণ ব্যবসায়ী ইন্তেজার রহমানের ছেলে। এ ব্যপাপারে ৫বন্ধুকে থানায় আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।  সরেজমিনে গেলে স্থানীয়রা জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে কে বা কাহারা তাকে নিসংশভাবে হত্যা করে সারিয়াকান্দি মাছ বাজার ও কালি মন্দিরের পূর্ব পার্শ্বে নিরঞ্জন শাহার গোয়াল ঘরের গলিতে রেখে পালিয়ে যায়। সকালে স্থানীয়রা লাশটি দেখতে পেয়ে থানা পুলিশকে খবর দিলে লাশটি উদ্ধার করে থানা পুলিশ। পরে নিহতের মা খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছে তার ছেলেককে শনাক্ত করে।

নিহতের মা নাজমা বেগম সংবাদিকদের জানান, বৃহস্পতিবার আনুমানিক সকাল ১০টায় নাঈমের এক বন্ধু নাঈমকে ফোন করলে নাঈম মোটর সাইকেল নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে আসে। এরপর থেকে সে আর বাড়ী ফিরেনি। রাতে নাঈমের কয়েক বন্ধুর সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তারা বিষয়টি এড়িয়ে যায়। আমরা বিশ্বাস তাঁর বন্ধুরাই তাকে নিসংশভাবে হত্যার পর আগুন লাগিয়ে পুড়িয়েছে। আমি এর সর্বচ্চ শাস্তি চাই।

এ ব্যাপারে সারিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আল আমিন বলেন, নাঈমের মায়ের দেওয়া অভিযোগে তার ৫বন্ধুকে আটক করে জিজ্ঞাসা বাদ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদের পর  তাদের কাছ থেকে ঘটনার সত্যতা বেড়িয়ে আসলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা নেওয়া হবে। বেলা ১২টায় রিপোর্ট লেখার আগ পর্যন্ত জিজ্ঞাসাবাদ চলছিল।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন