বগুড়া সংবাদ ডট কম : রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত হয়ে বিরোধী দমন নীতির অংশ হিসেবে অবৈধ সরকার কর্তৃক পুলিশ প্রশাসনকে নিদের্শনা দিয়ে অন্যায়ভাবে শহর যুবদল নেতা ও ২১ নং ওয়ার্ড যুবদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাম হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জেলা যুবদলের সহ-গণ শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ফয়সাল হোসেন লাবনসহ যুবদলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাঁদের পরিবারের সাথে অসদাচারণ করে গণ গ্রেফতার আতঙ্ক ছড়িয়ে মোটা অঙ্কের টাকা চাঁদা দাবি কারী শাজাহানপুর থানা পুলিশের ওসি তদন্ত আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত করে দ্রুত প্রত্যাহার চেয়ে এবং নেতৃবৃন্দের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করে শনিবার বিকেলে বিবৃতি দিয়েছেন বগুড়া জেলা যুবদলের সভাপতি ও কাউন্সিলর সিপার আল বখতিয়ার, সাধারণ সম্পাদক খাদেমুল ইসলাম খাদেম, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুকুল ইসলাম ফারুক, সহ-সভাপতি রাফিউল ইসলাম রুবেল, ফিরোজ হোসেন, নূর মোহাম্মদ রিপন, সাজন, রাশেদুল ইসলাম, টিকন, শফিক, শাসুর রহমান শামিম, সুমন, আঃ হালিম, যুগ্ম সম্পাদক আক্তারুজ্জামান, লাবু, অধ্যক্ষ শাহীন, আলাল মোল্লা, ইশতিয়াক, মোরশেদুল, হাজ্বি আঃ হান্নান, আঃ মমিন, সেলিমুজ্জামান সেলিম, জুম্মান আলী শেখ, হেলাল উদ্দিন, ফারুক হোসেন, জহুরুল ইসলাম ফুয়াদ, আলী হায়দার মিঠু, মহররম হোসেন টপিন, আনোয়ার হোসেন সান্টু, ত্বনি, নজরুল ইসলাম নজু, আঃ জলিল, আলতাফ, আনোয়ার হোসেন স্বপন, মিনাজুল নান্নু, ইঞ্জিঃ জিয়াউল ইসলাম আপেল, এড. মতি মন্ডল, এড. জামাল উদ্দিন, আশরাফুদৌলা মামুন, আমিনুর রহমান শাহিন, মমিন আকন্দ, ফেরদৌস আযম, সুনাম, রানা মন্ডল, আঃ মান্নান, মাসুদুর রহমান মাসুদ, জালাল, মঞ্জুরুল আলম লিটন, খোরশেদ, রনি, ইনছান, হিরু, রুবেল কাজি, এস,এ রাজ্জাক সুমন, রুহুল আমিন, পাঞ্জাব, তন্ময়, রেজাউল, সঞ্জয়, রাজিব, উৎপল, পারভেজ বাবুসহবিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। পুলিশি হয়রানি করে নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার না করার আহবান জানিয়ে নেতৃবৃন্দ বলেন, গনতন্ত্র পুনঃরুদ্ধারে রাজপথে শান্তিপূর্ণ কর্মসুচিতে বিরোধীদলকে অযথা বাধা প্রদান করে অরজকতার অবস্থা সৃস্টি করবেন না। গণ গ্রেফতার অব্যাহত থাকলে রাজপথে কঠোর কর্মসূচি দিতে যুবদল বাধ্য থাকবে। খবর বিজ্ঞপ্তির।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন