বগুড়া সংবাদ ডট কম (শেরপুর প্রতিনিধি রায়হানুল ইসলাম) : বগুড়ার শেরপুরে গত বুধবার সকালে মলম পার্টির খপ্পরে পড়ে আড়াই লাখ টাকা খোয়া গেছে মামুনুর রশিদ (৩২) নামের এক ব্যাক্তির। বর্তমানে সে শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
জানা যায়, উপজেলার খামারকান্দি গ্রামের আশরাফ আলীর ছেলে মামুনুর রশিদ গত ৮ বছর যাবৎ ধুনটরোড এলাকার মোঃ ফিরোজ আলমের মেসার্স লাবিব ট্রেডার্স ও মাস্টার বীজ ভান্ডারে বিশ্বতার সাথে ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন। গত বুধবার সকাল ১০ টার দিকে কোম্পানীর এ্যাকাউন্টে ব্রাক ব্যাংক শেরপুর শাখায় আড়াই লাখ টাকা জমা দিতে যায়। পথিমধ্যে অজ্ঞাত মলম পার্টির সদস্যরা তাকে অচেতন করে পাবনা জেলার বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেখে চলে যায়। এদিকে টাকা জমা দিয়ে আসতে দেরি হওয়ায় মহাজন ফিরোজ আলম খোজাখুজি করে না পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। খোজাখুজির এক পর্যায়ে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে বেড়া হাসপাতাল থেকে ফিরোজ আলমের মোবাইলে ফোন আসে যে মামুনুর রশিদ ওখানে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পরে রাত ১০ টার দিকে তাকে নিয়ে এসে শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে দেয়া হয়।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন