বগুড়া সংবাদ ডট কম (আদমদীঘি প্রতিনিধি সাগর খান) : বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা সদরে সততা ক্লিনিক নামক চিকিৎসালয়ে ভুল চিকিৎসায় আঁখি বেগম (২০) নামের এক প্রসূতীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ক্লিনিক ঘেরাও সহ এলাকায় উত্তেজনা সৃষ্টি হলে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।
জানা গেছে, আদমদীঘি উপজেলার পশ্চিমসিংড়া গ্রামের সোহেল রানার স্ত্রী আঁখি বেগমকে তার বাচ্চা প্রসব করানোর জন্য গত বৃহস্পতিবার আদমদীঘি উপজেলা হাসপাতাল গেট সংলগ্ন সততা ক্লিনিক এ্যান্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়। এদিন রাতে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের পরামর্শে নওগাঁ ইসলামী ব্যাংক কমিউনিটি হাসপাতালের ডা. আবু আনছারী নামের চিকিৎসক দিয়ে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে একটি ছেলে বাচ্চা প্রসব করান। শুক্রবার সন্ধ্যার প্রসূতী আঁখি বেগমের স্বামী সোহেল রানা খবর পায় যে, তার স্ত্রীর অবস্থা আশংকাজনক। সে দ্রুত ক্লিনিকে গিয়ে জানতে পারেন তার স্ত্রী মারা গেছেন। নিহতের স্বামী সোহেল রানা দাবী করেছেন, তার স্ত্রী ভুল চিকিৎসায় মারা গেছেন। কিন্তু ওই চিকিৎসক বলেন মৃত্যুর খবর তাঁর জানা নেই। তিনি পুরো ঘটনা না জানা পর্যন্ত কোন মন্তব্য করতে রাজী হয়নি। ক্লিনিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত পরিচালক তোজাম্মেল হোসেন গণমাধ্যম কর্মীদের প্রশ্নের কোন সদুত্তোর দিতে পারেন নি। স্থানীয়রা জানায়, এই ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় এর পূর্বে একাধিক রোগী মৃত্যুর ঘটনা ঘটলেও তা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ধামাচাপা পড়ে যায়।
আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্য মনিরুল ইসলাম মনির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ময়না তদন্তের জন্য ক্লিনিক থেকে প্রসুতির লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর (ইউডি) মামলা হয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন