বগুড়া সংবাদ ডট কম (মহাস্থান প্রতিনিধি এস আই সুমন) : বগুড়ার শিবগঞ্জের মহাস্থান প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও মহাস্থান উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য (অভিভাবক) সাইদুর রহমান সাজুকে শিবগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা জাতীয়পার্টির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শরিফুল ইসলাম জিন্নাহ কর্তৃক মারপিট ও লাঞ্চিত, প্রেস ক্লাবের প্রতিবাদ।
জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলা মহাস্থান উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪ তলা একাডেমিক ভবনের ফলক উম্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব শরিফুল ইসলাম জিন্নাহ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, তার জৈষ্ঠ পুত্র হুসাইন শরিফ সঞ্চয়, অনুষ্ঠানে সভাপতি ছিলেন, অত্র বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও এমপির ভগ্নীপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম দুলাল সহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ। অনুষ্ঠানে আশানুরুপ লোকের উপস্থিতি না থাকায় প্রধান অতিথি বিদ্যালয়ের সভাপতি,শিক্ষক/শিক্ষীকা ও কমিটির অন্যান্য সদস্যদেরকে কট্রোর ভাষা প্রয়োগ করে এবং অন্যের কান কথা শুনে অফিস থেকে বের হয়ে সাংবাদিক সাজুকে বলে যে।অনুষ্ঠানে লোক হলো না কেনো? এই বলেই তার সার্টের কলার ধরে তাকে মারপিট করে লাঞ্চিত করলে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে রক্ষা করে। তার ৪/৫ মিনিট পরেই এমপির পুত্র হুসাইন শরিফ সঞ্চয় ও তার সাথে থাকা শেখ ফজলুল বারী সাজুর কলারধরে স্কুলের কমন রুমে নিয়ে যেয়ে মারপিট ও লাঞ্চিত করে তার ব্যবহৃত ভিডিও অডিও মোবাইল দুইটি ফোন কেড়ে নেয়। সে সময় দৈনিক বগুড়া পত্রিকার মহাস্থান প্রতিনিধি ও মহাস্থান প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এস,আই সুমন ও নুরনবী রহমান ঐ ঘটনার ছবি তুলতে চেষ্টা করলে তাদের ব্যবহৃত ভিডিও মোবাইল এবং সুমনের ডিএসিলার ক্যামরা ও মোবাইল ফোন হাতে থেকে ছিনে নেয়। পরবর্তিতে সুমন ও সাজু সঞ্চয়ের সাথে যোগাযোগ করে প্রায় ৩ ঘন্টা পর মেমোরি ছাড়াই তাদের মোবাইল ও ক্যামেরা ফিরত দেয় এবং অনাঙ্খিত ঘটনার জন্য সাজু ও সুমনের কাছে সঞ্চয় ও ফজলুল হক দুঃখ প্রকাশ করে। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারের দেখার জন্য মহাস্থান প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকগন প্রশাসনে সহযোগিতা কামনা করেন। এঘটনার শিকার সাংবাদিক গন নিজেরদেরকে নিরাপত্তাহিন মনে করছেন। বিষয়টি শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলমগীর কবীর ও শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমানকে মোবাইলে মহাস্থান প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এব্যাপারে স্থানীয় সংসদ সদস্য শরিফুল ইসলাম জিন্নার সাথে মহাস্থান অফিসে কথা বলতে গেলে অফিসের বাহিরে থাকা তার লোক বলে তার সাথে এবিষয়ে দেখা বা কথা যাবে না এবং সংবাদ পরিবেশন না করার জন্য নিষেদ করে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন