বগুড়া সংবাদ ডট কম (শেরপুর সংবাদদাতা রায়হানুল ইসলাম) : বগুড়ার শেরপুরের শেরুয়া বটতলা পূর্বপাড়া গ্রামে যৌতুকের টাকা না পেয়ে বুধবার রাতে গৃহবধু আজমেরা খাতুন (২০) কে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় স্বামী বুলবুল আহম্মেদ পলাতক থাকলেও থানা পুলিশ শ্বশুর তোজাম হোসেন (৪৫) ও শাশুরি বুললি(৪০) কে আটক করেছে।
জানা যায়, নাটোর জেলার সিংড়া উপজেলার শুকাস ইউনিয়নের বনকুড়াইল গ্রামের আজমল হোসেনের মেয়ে আজমেরা খাতুনের সাথে দেড় বছর আগে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার শাহবন্দেগী ইউনিয়নের শেরুয়া বটতলা পূর্বপাড়া গ্রামের তোজাম হোসেনের ছেলে বুলবুল আহম্মেদের সাথে বিনা যৌতুকে বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর থেকে মাদকাশক্ত ভবঘুরে বুলবুল আহম্মেদ যৌতুকের টাকার জন্য মাঝে মধ্যে মানসিক ও শারিরিক নির্যাতন করে। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে গত কোরবানী ঈদের আগে গরিব অসহায় আজমল হোসেন তার মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে গরু বিক্রয় করে ৭০হাজার টাকা দেন। সেই টাকা নিজে নেশা করতে করতে এক পর্যায় ওই টাকা শেষ করে ফেলে। আবারো টাকার দাবী করে। স্ত্রী আজমেরা টাকা দিতে অস্বীকার করায় গত বুধবার রাতের যে কোন সময় তাকে বালিস চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে অভিযোগ উঠেছে। খবর পেয়ে গৃহবধুর পিতা আজমল হোসেন থানা পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। এ ব্যাপারে পিতা আজমল হোসেন বাদি হয়ে শেরপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
এ বিষয়ে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: হুমায়ুন কবীর বলেন, শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। তবে ময়না তদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে আসল ঘটনা জানা যাবে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন