বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায় ঘোষণার পর বগুড়ার শাজাহানপুরে যাত্রীবাহী কোচে পেট্রল বোমা হামলার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। থানার এসআই রুম্মান বাদি হয়ে এই মামলা (মামলা নং-১৩) দায়ের করেন।

মামলায় আটক জেলা যুবদলের সহ কৃষি বিষয়ক সম্পাদক নুর মাহমুদ মুন্সীকে (৩০) প্রধান আসামী করে এজাহারনামীয় ১০ জন এবং অজ্ঞাতনাম ২০ জনকে আসামী করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার আটক নুর মাহমুদ মুন্সিকে আদালতে পাঠিয়ে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ওবায়দুল আল মামুন।

উল্লেখ্য, বুধবার দুপুরে একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায় ঘোষণার পর শাজাহানপুরের সাজাপুর রাধারঘাট এলাকায় নাবিল ক্লাসিল নামে একটি যাত্রীবাহি বাসে পেট্রল বোমা নিক্ষেপ করে নাশকতাকারীরা। এতে বাস যাত্রী নীলফামারী জেলার জয়চন্ডি পুটিহাড়ি গ্রামের মোজাম্মেল হকের স্ত্রী আঞ্জুয়ারা (৫০), জলঢাকা উপজেলার শিমুলগাড়ি গ্রামের নজরুল ইসলামের স্ত্রী মুনিরা বেগম (৪০) এবং টাঙ্গাইলের শান্তিনগর গ্রামের শামছুল ইসলামের মেয়ে শামীমা খাতুন (২৭) নামে ৩জন মহিলা দগ্ধ হন। এসময় ধাওয়া করে জেলা যুবদলের সহ কৃষি বিষয়ক সম্পাদক নুর মাহমুদ মুন্সীকে (৩০) গ্রেফতার করে থানা পুলিশ।

থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গ্রেফতারকৃত নুর মাহমুদকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামীদেরকে গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন