বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনট উপজেলার চিকাশী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক সদস্য নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের সংর্ঘষে ইউপি চেয়ারম্যান সহ ৮ জন আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বরে এঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন- চিকাশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমুল কাদির শিপন (৪০), চিকাশী গ্রামের ইউনুস আলী মন্ডলের ছেলে আমিনুর (৪০), ইয়াকুব আলীর ছেলে সুমন মিয়া (৩৫), তফিছ মন্ডলের ছেলে ওমর আলী (৫৫), চাঁন মিয়ার ছেলে আনোয়ার হোসেন শাহিন (৪০), বরকত সরকারের ছেলে আব্দুল খালেক (৬০), সাইফুল ইসলামের ছেলে পলাশ (৩৫) ও ধুনট সদর পাড়ার সবদের শেখের ছেলে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক সুজন শেখ (৩৮)।
জানাগেছে, বৃহস্পতিবার চিকাশী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক সদস্য পদে পুরুষ ও মহিলা ৮জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। দুপুর ২টায় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চিকাশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ন সম্পাদক নাজমুল কাদির শিপন ও চিকাশী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আলেফ বাদশার লোকজনের মধ্যে সংর্ঘষ বাধে।
এবিষয়ে চিকাশী ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল কাদির শিপন বলেন, আমার লোকজন ভোট কেন্দ্রের বাহিরে ফলাফলের অপেক্ষা করছিল। নির্বাচনে আলেফ বাদশাহর প্রার্থীর পরাজয়ের আশংকা থাকায় লাঠি শোডা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে সে ও তার লোকজন আমাদের ওপর অতর্কিতভাকে হামলা চালায়।
তবে আলেফ বাদশাহ বলেন, আমার লোকজন নিবর ভুমিকা পালন করছিল। কিন্তু ইউপি চেয়ারম্যান ও তার লোকজন উল্টো আমাদের উপরই আক্রমন করে আমাদের লোকজনকে আহত করে।
ধুনট উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কামরুল হাসান জানান, ভোট কেন্দ্রে কোন ধরনের হামলার ঘটনা ঘটেনি। তবে ভোট কেন্দ্রের বাহিরে দুই পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনার কথা শুনেছেন।
ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) ফারুকুল ইসলাম বলেন, সংবাদ পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনা হয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন