বগুড়া সংবাদ ডট কম (আবু রায়হান, দুুপচাঁচিয়া প্রতিনিধিঃ দুপচাঁচিয়ায় দরজায় কড়া নাড়ছে শারদীয় দুর্গোৎসবের। দিন-ক্ষণ এগিয়ে আসছে,মহালয়ার মাধ্যমে জাকজঁমক আর বর্ণিল আয়োজনে শুরু হবে সনাতন ধর্মালম্বীদের সব চেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজা। আর এ উৎসবকে ঘিরে শৈল্পিক আর দুষ্টি নন্দন প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্থ মৃৎশিল্পীরা। আগামী ১৫ অক্টোবর হতে দুর্গাপূজা শুরু হবে।

উপজেলার তালোড়ায় গৌরব অটো রাইচ মিলে প্রতিমা তৈরি করছিলেন মৃৎশিল্পী দিলীপ মালী। কাজের ফাঁকে তিনি বলেন,পারিশ্রমিক নয়,নজর দিচ্ছি দৃষ্টি নন্দন প্রতিমা তৈরিতে। যাতে দর্শনার্থীরা পূজার সময় প্রতিমা দেখে আনন্দপান। এ উৎসবকে ঘিরে উপজেলার হিন্দু পল্লীতে বইছে আনন্দের বারতা। দিনরাত কাজ করে শিল্পীদের হাতের নিপূণ ছোঁয়ায় তৈরি হচ্ছে প্রতিমা। মন্দির কর্তৃপক্ষরা অর্থকে তেমন প্রধান্য দিচ্ছেন না। মা রূপী দেবী দুর্গাসহ অন্যান্য মূর্তিগুলো যেন দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করে সে ব্যাপারে কারিগরদের জোর তাগিদ দিচ্ছেন।

এবার দুপচাঁচিয়া উপজেলায় ৩৮টি মন্দিরে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রতিটি মন্দিরেই কারিগরদের প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা গেছে। দুপচাঁচিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, সনাতন ধর্মালম্বীদের দুর্গাপূজাকে ঘিরে এ উপজেলায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হবে। ইতি মধ্যেই উপজেলার ৩৮টি পূজা মন্ডব পুলিশী নজরদারিতে রয়েছে।

প্রতিমা তৈরি থেকে শুরু করে পূজা শেষ হওয়া পর্যন্ত পূজা মন্ডব ও আশপাশে কোন রুপ বিশৃঙ্খলা বরদাস্ত করা হবে না। উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অসীম কুমার দাস বলেন,সুষ্ঠ ও শান্তিপুর্ন ভাবে দুর্গাপূজা উৎসব উদযাপনের ক্ষেত্রে তিনি সকলের সহযোগিতা কমনা করেছেন।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন