বগুড়া সংবাদ ডট কম (এস আই সুমন, মহাস্থান প্রতিনিধিঃ বগুড়া সদরের পীরগাছা এ.এফ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে গত শনিবার মা সমাবেশ ও বিরোধী চীফ হুইপ নুরুল ইসলাম ওমরের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে হিন্দু ছাত্রীদের গরুর মাংসের তৈরি পোলা খাওয়ানোর মিথা গুজবের অভিযোগে সনাতন ধর্মীয় কিছু অভিভাবক প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশ করে।

এঘটনায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হান্নানকে অভিযুক্ত করে তার আটকের দাবী তোলে। সংবাদ পেয়ে সদর সার্কেলের এ এসপি সনাতন চক্রবর্তী ও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ বদিউজ্জামান, ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে প্রধান শিক্ষকের নিরাপদের জন্য থানায় নিয়ে আসে। পরের দিন সোমবার সকালে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের প্রিয় প্রধান শিক্ষক আব্দুল হান্নাকে মিথ্যা অভিযোগের আটকের কথা জানতে পারে এবং সকাল ১১ টায় তার মুক্তির দাবীতে পীরগাছা বন্দরে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এবং মিথ্যা গুজব কারীদেরকে আটক করে শাস্তি প্রদানের জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান হয়।

পরিক্ষা বর্জনের সংবাদ জানতে পেরে সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার গোলাম মাহবুব মোরশেদ, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও শাখারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান সফিক, লাহিড়ীপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মাফতুন আহম্মেদ, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আজহারুন্নান রিপু, বিদ্যালয় পৌছে শিক্ষার্থীদের কে পরিক্ষা অংশ গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ জানান এবং প্রধান শিক্ষক আব্দুল হান্নান নির্দোশ হলে আইনের মাধ্যমে তাকে স্কুলে ফিরে নিয়ে আসার প্রতিশ্রুতি দিলে তারা পরিক্ষা দেওয়া শুরু করে।

উল্লেখ্য যে এলাকার কিছু সনাতন ধমের্র নেতৃবৃন্দু বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছে থেকে অবৈধ সুযোগ গ্রহণ করতে না পারায় তার বিরুদ্ধে ভূয়া অভিযোগ তুলেছে বলে এলাকাবাসী সাংবাদিকদেরকে জানান। প্রকৃত পক্ষে সনাতন ধর্মের কোন শিক্ষার্থীদের কে গরুর মাংসের পোলা খাওয়ানো হয়নি। বরং সকল অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের জন্য ফাস্টফুটের নাস্তা ব্যবস্থা করে বিতরণ করা হয়েছিল। এব্যাপারে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির ইকবাল হোসেন ও দাতা সদস্য নজরুল ইসলাম এর সাথে কথা বললে তারা জানান, আমরা মুসলমান আর মুসলমান হয়ে সনাতন শিক্ষার্থীদের কি ভাবে গরু মাংস খাওয়াবো, শিক্ষার্থীদের জন্য ৮ শত প্যাকেট নাস্তার ব্যবস্থা করা হয়েছিল।

ঘটনাটি সত্য নয় ইহা পরিকল্পিত। কেননা পূর্বের জেধরে ব্যানার তৈরি করে প্রধান শিক্ষককে হেয় ও তার সুনাম নষ্ঠ করার জন্য বাংলাদেশ পূজো উদযাপন পরিষদ সদর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক শ্রী উজ্জল চন্দ্র সরকার ও কিছু স্বার্থ ন্বেষী মহল এঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রভাহিত করার জন্য চেষ্ঠা করেছে বলে এলাকাবাসী, শিক্ষার্থী ও সচেতন অভিভাব সাংবাদিকদের কে জানান।শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, দ্রুত প্রধান শিক্ষক আব্দুল হান্নানকে মুক্তি না দিলে আগামী দিনে কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে ।

 

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন