বগুড়া সংবাদ ডট কম : প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা বলেছেন আগামী ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহ অথবা জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে জাতীয় নির্বাচন করতে হবে। এ বিষয়টি মাথায় রেখে নির্বাচন কমিশন যাবতীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করছেন। তিনি বৃহস্পতিবার বিকেলে বগুড়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জেলা প্রশাসক নুরে আলম সিদ্দিকি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে নির্বাচন সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ে উপরোক্ত কথা বলেন। ইভিএম পদ্ধতি ব্যবহারের ব্যাপারে তিনি বলেন সব রাজনৈতিক দল ও জনগণ চাইলে আগামী সংসদ নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন ব্যবহার করা হবে তবে তা সীমিত পরিসরে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, প্রযুক্তির সাথে এগিয়ে যাওয়ার জন্য আমরা নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করতে চাই, তবে এ ক্ষেত্রে আইনের পরিবর্তনের দরকার। সেই আইন পরিবর্তনের জন্য আমরা আইন মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছি। সেই প্রস্তাব এখনো আইনে পরিণত হয়নি। যদি সেটা আইনে পরিণত হয় তাহলে আমরা সীমিত আকারে ইভিএম ব্যবহার করবো। ইভিএম ব্যবহারে বিএনপি’র আপত্তি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, দেশের জনগণ ও সব দল চাইলে আগামী নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করা হবে। তিনি বলেন, ইভিএম একটি আধুনিক পদ্ধতি এতে ভুয়া এবং জাল ভোট প্রতিরোধ করা যায়।প্রধান নির্বাচন কমিশনার আরও বলেন সঠিক সময়ে দেশে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের সম্ভাব্য তারিখ সম্পর্কে তিনি বলেন, এখনো কমিশনে চুড়ন্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। নির্বাচন কমিশনের প্রতি কোনো রাজনৈতিক দলের অনাস্থার বিষয়ে তিনি বলেন, তাদের রাজনৈতিক স্বাধীনতা আছে এটা বলতেই পারে, এটা তাদের ব্যাপার। তবে আমাদের সক্ষমতা নিয়ে আমরা সন্ধিহান নই। আমরা মনে করি সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানে আমরা প্রস্তুত আছি এবং এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনের যথেষ্ট সক্ষমতা আছে। সবদলের নির্বাচনে অংশগ্রহণের ব্যাপারে তিনি বলেন, তারা চান সব দলই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক।কিন্তু কেউ নির্বাচনে না আসলে আলাদা করে কোন রাজনৈতিক দলের সাথে আর বসার কোন সুযোগ ও সময় নেই। বগুড়া জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, র‌্যাবসহ জেলা আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তারা। প্রধান নির্বাচন কমিশনার আরও বলেন, সকলে পেশাদারিত্ব বজায় রেখে দায়িত্ব পালন করলে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন উপহার দেওয়া সম্ভব। তিনি বলেন, নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারী সকল বাহিনীর মধ্যে সমন্বয় ও সহায়তা এবং জনগনকে তার সাথে সম্পৃক্ত করতে পারলে সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠান করা অসম্ভব নয়। এর আগে বগুড়া’র সার্ভার ষ্টেশনে সকাল ১১ টায় আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসার রাজশাহী সৈয়দ আমিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নূরুল হুদা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের নির্বাচন অফিসার ও বগুড়া জেলা ও উপজেলার নির্বাচন কর্মকর্তাবৃন্দ।মতবিনিময় সভায় নির্বাচন সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যা এবং কিভাবে সমাধান করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা করনে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন