বগুড়া সংবাদ ডট কম (মহাস্থান প্রতিনিধি এস আই সুমন) : বৃহস্পতিবার বিকালে বগুড়া সদরের তেলিহারা গ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক বৃদ্ধকে মারপিট করে আটক, ইউপি সদস্য ও থানা পুলিশ কর্তৃক উদ্ধার। হাসপাতালে ভর্তি। বগুড়া সদর উপজেলার শেখেরকোলা ইউনিয়ন পরিষদের ১৮/১৮ নং, মামলা ও ২৭/৯/১৮ ইং তারিখের অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, তেলিহারা বালুপাড়া গ্রামের হোসেন আলী প্রাং এর সাথে একই এলাকার হযরত আলীর পুত্র ফিরোজ আহম্মেদ রোজ এর সাথে ঘরের প্রাচির নিয়ে ঝগড়া হয়। এ ব্যাপরে হোসেন আলীর স্ত্রী মর্জিনা বেগম বাদী হয়ে ২৭/১/১৮ ইং তারিখে এ ঘটনায় শেখেরকোলা ইউনিয়ন পরিষদে একটি অভিযোগ দায়ের করে। পরিষদ থেকে বিবাদী বুলু মিয়া, রোজ, রনি ও ইসমাইল এর বরাবর একটা নোটিশ জারী করা হয়। নোটিশ পাওয়ার পর পরই বিবাদীগনের কয়েকজন হোসেন আলীকে মারপিট করে একটি বাড়ীর বারান্দায় বসে রাখে এবং বলে যে বিষয়টির, সমস্যার সমাধান না হওয়া পর্যন্ত তুমি এখানেই থাকবে। এ ঘটনা বগুড়া সদর থানা পুলিশ জানতে পেরে হোসেন আলীকে উদ্ধার করে তার আত্মীদের মাধ্যমে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করার নির্দেশ দেন। ৫ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমি ঘটনা শুনে তৎক্ষনাত ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ সহ ঘটনাস্থলে পৌছে আটককৃত হোসেন আলীকে ছেরে দিতে বলি ও ঘটনাটি পরবর্তিতে বসে মিমাংসার কথা বললে বিবাদিগন আমাকে সেখান থেকে তাড়িয়ে দেয়। আমি গ্রাম পুলিশদেরকে রেখে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করি। এব্যাপারে বিবাদী হযরত আণীর পুত্র ফিরোজ আহম্মেদ রোজের সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমাদের বিরুদ্ধে ইউনিয়ন পরিষদে যে অভিযোগ দেওয় হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি তার কাছে থেকে জমি পাব, সে জমি বের করে দিতে বললে তার সাথে সামান্য ঝগড়া হয়। বিষয়টি সমাধানের জন্য আমরা প্রশাসন সহ ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃপক্ষের সহযোগীতা কামনা করছি।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন