বগুড়া সংবাদ ডট কম (এস আই সুমন, মহাস্থান প্রতিনিধিঃ সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেই বগুড়ার রংপুর-মহাসড়কে অবাধে চলছে সিএনজি চালিত অটোরিকশা, ব্যাটারী চালিত রিক্সা সহ আটো ভ্যান। এর ফলে প্রায়ই ঘটছে ছোট-বড় নানা দুর্ঘটনা। এসব দুর্ঘটনার কারণে মহাসড়কে ক্রমেই বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। কর্তৃপক্ষের প্রয়োজনীয় নজদারি না থাকায় এখনো পর্যন্ত মহাসড়কে দাবড়ে বেড়াচ্ছে প্রাণঘাতী এসব যানবাহন।

জানা গেছে, জেলার সড়ক-মহাসড়কগুলোতে চলাচলকারী শতকারা ৬০ ভাগ সিএনজি চালিত সিএনজি ও অটোরিকশারই কোনো নিবন্ধন বা রেজিস্ট্রেশন নেই। মান্থলি নামে মাসে প্রতি গাড়ী ৪শ থেকে ৫ শ টাকা প্রদান করে মালিক সমিতি ও প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই চলছে তারা অবাধে। নাম প্রকাশে অনচ্ছুক এক জন সিএনজি ড্রাইভারে সাথে কথা বললে সে জানায় প্রতি মাসে ৪শত থেকে ৫ শত টাকা মালিক সমিতিকে আমরা প্রদান করি মালিক সমিতির সভাপতি ও সেক্রেটারী এই টাকা প্রশাসনকে ম্যানেজ করার জন্য নিয়ে থাকে।

বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের মাটিডালী থেকে মহাস্থান-মোকামতলা রহবল এলাকায় দেখা যায় মহাসড়কে অবাধে চলাচল করছে অবৈধ সিএনজি চালিত অটোরিকশা, সাথে ব্যাটারী চালিত ভ্যান রিক্সা। দেখা গেছে, সিএনজিতে চালকের পাশেই অতিরিক্ত মহিলা ও শিশু বসে জীবনের ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে। এছাড়া বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী বাসগুলো দ্রুত বেগে অভারটেক করে পাল্লা দিয়ে চলাচল করছে। সরেজমিনে দেখা গেছে বগুড়া টু গাইবান্ধা, বগুড়া টু সোনতলার বাস গুলির দক্ষ চালক নেই, ফিটনেস বিহীন, অভার টেকিং করে যেখানে সেখানে থামে । এতে করে দূর্ঘটনা ঘটেই চলেছে। এ ছাড়াও মহাসড়কে বাসষ্ট্যান্ড এলাকার আশেপাশে সড়ক ও জন পথের জায়গা দখল করে গড়ে উঠেছে অবৈধ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

মহাসড়কের আশপাশের এলাকার লোকজন জানান, আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকজনদের সিএনজি চালিত অটোরিকশা কেন্দ্রিক অবৈধ ঘুষ বাণিজ্যের কারণে মহাসড়কে মৃত্যুর মিছিল বাড়ছে। তাই জীবন বাঁচাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন তারা।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন