বগুড়া সংবাদ ডটকম : দেশের শীর্ষ দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন এর সম্পাদক নঈম নিজাম, প্রকাশক, বার্তা সম্পাদক ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে বগুড়ায় দায়ের করা দুটি মানহানী মামলার মধ্যে একটি মামলা প্রত্যাহার করে নিলেন মামলার বাদী বিশিষ্ট ব্যবসায়ি আব্দুল মান্নান আকন্দ।
বুধবার দুপুরে বগুড়া জেলা (১ম) যুগ্ম জজ আদালতের বিচারক শাহাদৎ হোসেনের আদালতে মামলার বাদী বিশিষ্ঠ ঠিকাদার আব্দুল মান্নান আকন্দ নিজে উপস্থিত হয়ে মামলাটি প্রত্যাহার করার আবেদন করেন। বিচারক বাদীর বক্তব্য শুনে মামলাটি প্রত্যাহারের আদেশ প্রদান করেন।
মামলা প্রত্যাহারের পর আদালত চত্বরের বাহিরে বিশিষ্ট ব্যবসায়ি সমাজসেবক, আওয়ামী লীগ নেতা এবং বগুড়া জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল মান্নান আকন্দ সাংবাদিকদের জানান, দেশের প্রতিটি নাগরিক সত্য ও সুন্দরের পথে হাঁটতে চায়। সুন্দর ও সত্যকে আঁকড়ে ধরে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যায়। আর এই সত্যকে বলিষ্ট হাতিয়ার করে ব্যবসায়ি ও সংবাদপত্রও এগিয়ে যাচ্ছে। যে সংবাদটির জন্য মামলা করা হয়েছিল তার প্রতিবেদক সঠিক সুত্র না নিয়ে কিছুটা বিভ্রান্তি তথ্যের ভিত্তিতে পরিবেশন করে। ঐ প্রতিবেদক তার ভুল বুঝতে পেরেছেন। তিনি বলেন, ব্যবসায়ি, সংবাদপত্রসহ সর্বপরী দেশের সকল নাগরিকদের এক সাথে পথ চলতে হবে, তাহলে এই দেশে আরো বেশি সুন্দর ও শৃঙ্খলে পাবো।
এসময় উপস্থিত ছিলেন কালেরকণ্ঠ বগুড়া অফিসের প্রধান লিমন বাসার, ফটো সাংবাদিক ঠান্ডা আজাদ, বগুড়া প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি আব্দুস সালাম বাবু, ক্রীড়া সম্পাদক এইচ আলিম, নির্বাহী সদস্য সাজেদুর রহমান সিজু, বাংলাদেশ প্রতিদিন বগুড়ার স্টাফ রিপোর্টার আব্দুর রহমান টুলুসহ অন্যান্য সাংবাদিকবৃন্দ।
এর আগে চলতি বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারী বগুড়ার ১ম যুগ্ম জেলা জজ আদালতে পৃথকভাবে দুটি মানহানীর মামলা দায়ের করা হয়। একটি মামলা করেন বগুড়ার বিশিষ্ট ব্যবসায়ি বগুড়া জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি আব্দুল মান্নান আকন্দ এবং অপর মামলাটি দায়ের করেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মোহন। এরমধ্যে আব্দুল মান্নান আকন্দ তার মামলাটি তিনি স্বেচ্ছায় প্রত্যাহার করে নেন।
মামলার বিবাদী পক্ষের আইনজীবী এ্যাডঃ আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, বাংলাদেশ প্রতিদিন এর সম্পাদক, প্রকাশক, বার্তা সম্পাদক ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে ব্যবসায়ি ও পরিবহন মালিক বগুড়ার আব্দুল মান্নান আকন্দ তার মানহানীর অভিযোগে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন