বগুড়া সংবাদ ডট কম (মহাস্থান প্রতিনিধি এস আই সুমন) : মোহরানা ও খোরপোষের দাবিতে দারে দারে ঘুরছে তিন সন্তানের জননী নব-মুসলীম শান্তনা বেগম।
বগুড়ার শিবগঞ্জ থানা পারিবারিক জজ আদালত ও ভুক্ত ভোগী শান্তনা বেগম( নব মুসলিম) জানান গত ১৫/১ /১৯৯৫ ইং তারিখে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে মুসলম্ন হয়ে শিবগঞ্জ থানার মোকামতলা ইউনিয়নের মৃত সাদেক আলীর পুত্রের সাথে বিবাহ হয়। বিবাহের পর তার কোল উজ্জল করে পর পর একটি মেয়ে ও ২ টি পুত্র সন্তান জন্ম গ্রহণ করে। তাকে সর্বদায় নির্যাতন করে খোরপোষ না দেওয়াই বগুড়ার সিনি: সহকারী জজ আদালতে তার স্বামী সামছুল ইসলাম ও তার ভাই আ: সোবাহকে বিবাদী করে গত ১২৭/২০১৩ ইং নং একটি মামলা দায়ের করে। মামলার পর থেকে শান্তনা বেগমের উপর নির্যাতনের ষ্টিম রোলার আরও বাড়তে থাকে এবং তাকে বাড়ী থেকে বের করে দেওয়া হয়। গত কয়েক বছর ধরে শান্তনা দুটি ছোট পুত্র সন্তান সিয়াম এ শুভ ইসলাম সাহানকে নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ঝি এর কাজ করে মানবেতর জীবন জাপন করছে। শান্তনা আরও জানায় তার স্বামী একজন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। মাদক ব্যবসায় সহযোগীতা না করায় ছিল তার অপরাধ। সামছুল তাকে বাড়ী থেকে বের করে দিয়ে সে আবারও একটি বিয়ে করে। তার বিরুদ্ধে কোর্ট থেকে আদেশ হয়, শান্তনাকে তার মোহরানান ৪৯ হাজার টাকা ও খোরপোষ প্রদানের। কোর্টের আদেশ অমান্য করে সে শান্তনাকে প্রায়ই হত্যার হুমকি প্রদান করে আসছে। এ ঘটনায় কোর্ট থেকে তার বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট ইস্যু করা হয়। শান্তনা মুসলমান হওয়াই তার পূব পুরুষদের কাছেও যাইতে পারছেনা, স্বামীও খোরপোষ দিচ্ছেনা। প্রশাসন ও পুলিশের কাছে তার আকুল আবেদন মাদক ব্যবসায়ী সাসছুলকে দ্রুত আটক করে আইনের আওতায় এনে শাস্তি প্রদান করার।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন