বগুড়া সংবাদ ডট কম (সাগর খান, আদমদীঘি প্রতিনিধি ঃ বগুড়ার আদমদীঘিতে সুমন হোসেন (২৫) নামের এক যুবককে হাত পা ও মুখ বেধে মাটি চাপা দিয়ে হত্যা চেষ্টা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। পরে গ্রামবাসির চেষ্টায় প্রাণে রক্ষা পেয়েছে ওই যুবক । ঘটনাটি ঘটেছে রোববার রাতে উপজেলার দমদমা গ্রামে। আহত যুবক সুমন হোসেন বর্তমানে আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন।

গ্রামবাসি ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, রোববার রাত সাড়ে আট’টার দিকে সুমন হোসেন তার বাড়িতে ফিরছিলেন। বাড়ির পাশে পৌছার সময় চার জন দুর্বৃত্ত তাকে জাপটে ধরে এবং সাথে সাথে তার হাত,পা দড়ি দিয়ে বেধে ফেলে। পরে মুখে মাটি ঢুকিয়ে দিয়ে গামছা দিয়ে মুখ বেধে ফেলে একটি গর্তে ফেলে দেয়। এরপর তারা গর্তের পাশে থাকা মাটি দিয়ে সুমন কে চাপা দেয়ার চেষ্টা করে। এ সময় ওই পথ দিয়ে লোকমান হোসেন নামের এক ব্যাক্তি যাওয়ার সময় ঘটনা দেখে ফেললে দুর্বৃত্তরা দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে লোকমান হোসেনের চিৎকারে গ্রামবাসি এগিয়ে আসে এবং ওই গর্ত থেকে সুমন কে উদ্ধার করে আদমদীঘি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করান।

সুমনের মা মাহামুদা বেগম জানান, এর আগেও তার ছেলে কে রাতের আধারে দুই বার হত্যার চেষ্টা চালায় দুর্বৃত্তরা। এ বিষয়ে সুমন হোসেনের মা মাহামুদা বেগম আদমদীঘি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। আদমদীঘি থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বিষয়টি তদন্তের পর মামলা গ্রহন করা হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন