বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনটে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ১১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যমুনার অব্যাহত পানি বৃদ্ধিতে চরের ৫৭ সেক্টর জমির বিভিন্ন ফসল নিমজ্জিত হয়েছে। এছাড়া পানিবন্দি হয়ে পড়েছে চরের শতাধিক পরিবার।
ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুল করিম আপেল জানান, গত কয়েক দিনের অব্যাহত পানি বৃদ্ধিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে বৈশাখী চরের প্রায় শতাধিক পরিবার। এভাবে পানি বৃদ্ধি পেলে একদিনের মধ্যেই বাঁধের পূর্ব পাশের ঘরবাড়ীতে এবং চরের বসতবাড়ীতে বন্যার পানি প্রবেশ করবে। ইতিমধ্যে ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নের শিমুলবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বন্যার পানি প্রবেশ করেছে। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, বন্যার পানিতে চরের ৪২ হেক্টর জমির রোপা-আমন ধান, ৬ হেক্টর জমির বিভিন্ন শাক-সবজী, ৭ হেক্টর জমির মরিচ ও ২ হেক্টর জমির আখ নিমজ্জিত হয়েছে।
বগুড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী হারুনর রশিদ জানান, যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ১১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। একারনে বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ এলাকা সার্বক্ষনিক নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন