বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনটে মদ্যপান করে মাতলামি করায় সামিউল হাসান রনি (১৯) নামের এক ছাত্রলীগ নেতাকে গণধোলাই দিয়েছে স্থানীয় জনতা। আহত ওই ছাত্রলীগ নেতা ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদিকে ছাত্রলীগ নেতার মদ্যপান করে মাতলামির ভিডিও মোবাইলফোনে ছড়িয়ে পড়ায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
স্থানীয় লোকজন জানায়, গত বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় ছাত্রলীগ নেতা সামিউল হাসান রনি মদ্যপান করে গোসাইবাড়ী বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় মাতলামি করতে থাকে। একপর্যায়ে সে মাতাল অবস্থায় কয়েক ভ্যানচালককে মারধর করে। এসময় স্থানীয় লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে সামিউল হাসান রনিকে গণধোলাই দেয়।
গোসাইবাড়ী বাসষ্ট্যান্ড এলাকার নরসুন্দর (নাপিত) শ্রী পলাশ মালি ও শ্রী প্রান্ত মালি জানায়, সামিউল হাসান রনি ছাত্রলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে তাদের সেলুন থেকে প্রতিদিন ২০/৩০ টাকা চাঁদা নেয়। চাঁদার টাকা না দিলে সে মাদক সেবন করে এসে সেলুনের জিনিসপত্র দোকানের বাহিরে ছুড়ে ফেলে দেয়। তারা চাঁদাবাজ এই ছাত্রলীগ নেতার বিচার দাবি করেছেন।
তবে ছাত্রলীগ নেতা সামিউল হাসান রনি তার বিরুদ্ধে মদ্যপানের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারনে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আবু সালেহ্ স্বপনের নেতৃত্বে তার লোকজন আমাকে পিটিয়ে আহত করেছে।
উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আবু সালেহ্ স্বপন জানায়, সামিউল হাসান রনি ছাত্রলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে মাঝেমধ্যেই অনেক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে চাঁদা আদায় করে। কেউ চাঁদা না দিলে সে মাদক সেবন করে ওই সব ব্যবসায়ীদের গালাগালি করে এবং বিভিন্ন হুমকিও দেয়। বৃহস্পতিবার সে মদ পান করে বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় প্রকাশ্যে মাতলামি করে ভ্যান চালকের কাছে চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দেওয়ায় সে কয়েক ভ্যান চালককে মারধর করে। এতে স্থানীয় লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে গণধোলাই দিয়েছে। তবে সামিউল হাসান রনি ছাত্রলীগের কোন পদে না থাকলেও সে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির পরিচয় দিয়ে এসব অপকর্ম করে বেড়ায় বলে জানান তিনি।
উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জাকারিয়া খন্দকার বলেন, সামিউল হাসান রনি ছাত্রলীগ কর্মী। সে ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী। ঘটনার দিন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক স্বপনের লোকজন পরিকল্পিতভাবে তাকে মদপান করিয়ে মারধর করেছে। সে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) ফারুকুল ইসলাম বলেন, এবিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন