বগুড়া সংবাদ ডটকম: এম এ মতিন, কাহালু (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার কাহালুর বীরকেদার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অভিনব কায়দায় আবারও চুরি হয়েছে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ০৫/০৯/১৮ইং তারিখে কাহালুর বীরকেদার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগন ছুটির পর প্রতিদিনের ন্যায় বিদ্যালয় তালাবদ্ধ করে চলে যান।

গত ৬ সেপ্টেম্বর সকাল ৮.৫৫ মিনিটে প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষের তালা খুলে ভিতরে ঢুকে তিনি দেখেন অফিস কক্ষের ৩টি সেলিং ফ্যান, ১টি বেল (ঘন্টা), ১০টি প্ল্যাষ্টিকের চেয়ার, প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীর সনদপত্র সহ কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র বিদ্যালয়ের কোন নাইট গার্ড না থাকায় রাতে কে বা কাহারা বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে হতে চুরি করে নিয়ে যায়।

বিদ্যালয়ের চুরির ঘটনার সংবাদ শুনে ঘটনাস্থলে যান কাহালু উপজেলা শিক্ষা অফিসার এস এম সারওয়ার জাহান সহ ৩ জন সহকারি শিক্ষা অফিসার। এ ঘটনায় অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল জলিল সরকার বাদী হয়ে গত ১০ সেপ্টেম্বর কাহালু থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বীরকেদার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আতাউর রহমান, সাবিনা ইয়সমিন ও স্থানীয় লোকজন জানান, গত ৩০/০৭/১৮ইং তারিখে অত্র বিদ্যালয়ে চুরি হয়েছিল।

এছাড়াও তারা আরও জানান, অত্র বিদ্যালয়ে এর আগেও একাধিক বার চুরির ঘটনা ঘটেছিল। অত্র বিদ্যালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুর রউফ এর সাথে কথা বলা হলে তিনি বলেন, অফিস কক্ষে তালা লাগানো ছিল এবং প্রধান শিক্ষক ছাড়া অন্য কোন শিক্ষকের কাছে অফিসের চাবি ছিল না তারপরও অফিস কক্ষে হতে আসবারপত্র চুরি এটা রহস্যজনক।

অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল জলিল সরকার এর সাথে কথা বলা হলে তিনি বলেন, আমাকে ফাঁসানোর জন্য চুরির ঘটনা ঘটানো হয়েছে। এ ব্যাপারে কাহালু থানার ডিউটি অফিসার এ এস আই মাসুদ রানা এর সাথে কথা বলা হলে তিনি অভিযোগ পাওয়ার কথা নিশ্চিত করেন।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন