বগুড়া সংবাদ ডটকম (শেরপুর প্রতিনিধি কামাল আহমেদ) : বগুড়ার শেরপুরে বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে লিমন হাসান (১৬) নামে নবম শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রকে রক্তাক্ত জখম করেছে তারই আরেক সহপাঠি আসিফ বাবু। শনিবার (০৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়ক সংলগ্ন উপজেলার মহিপুর সামিট স্কুল এন্ড কলেজ প্রাঙনে ঘটনাটি ঘটে। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে তাকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাৎক্ষণিক বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে উক্ত ঘটনার পরপরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে আসিফ বাবুকে (১৮) গ্রেফতার করেছে। এসময় তার কাছ ঘটনায় ব্যবহৃত চাইনিজ চাকু উদ্ধার করা হয়। সে গাড়ীদহ ইউনিয়নের মহিপুর জামতলা এলাকার বদিউজ্জামানের ছেলে। ছুরিকাঘাতে আহত লিমন হাসানের বাবা উপজেলার মহিপুর কলোনি এলাকার বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম জানান, স্কুল পরীক্ষায় খাতা না দেখানো নিয়ে লিমন হাসানের তার সহপাঠি আসিফ বাবুর বিরোধ দেখা দেয়। এরই জেরধরে স্কুল চলাকালীন সময়ে পানি পানের উদ্দেশ্যে শ্রেণীকক্ষ থেকে বের হলে আসিফ বাবু তার ওপর হামলে পড়ে। এমনকি পকেট ধেকে চাকু বের করে উপর্যুপুরি আঘাত করতে থাকে। এতে তার মাথাসহ শরীরের একাধিক স্থানে রক্তাক্ত জখম হয়। একপর্যায়ে তার চিৎকারে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এগিয়ে এলে আসিফ বাবু পালিয়ে যায়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়া হয় বলে জাহাঙ্গীর আলম জানান। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শেরপুর দায়িত্বে থাকা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোর্শেদা খাতুন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনার পরপরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আসিফ বাবুকে গ্রেফতার করেছে। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন