বগুড়া সংবাদ ডটকম (স্টাফ রিপোর্টার) বগুড়ায় বিএনপির নেতাকর্মীদের নানা অজুহাতে গ্রেফতার ও গ্রেফতার ভীতি তৈরী করায় উদ্বেগ প্রকাশ করে ও এর প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টায় নবাববাড়ি সড়কে দলের কার্যালয়ে জেলা বিএনপির পক্ষথেকে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সভাপতি মোঃ সাইফুল ইসলাম অভিযোগ তুলে বলেন, ডিবি পুলিশের পরিচয়ে বুধবার রাতে সোনাতলা উপজেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক মোস্তাক আহম্মেদ লিটনকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। দুঁপচাচিয়া উপজেলা থেকে পুলিশ ৩ নেতা কর্মীকে তুলেনিয়ে গেছে। সেখানে পুলিশের তল্লাশি অভিযানের মুখে বিএনপির নেতাকর্মীরা এখন বাড়ি ছাড়া। প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগদিতে আসার সময় আওয়ামীলীগের সন্ত্রাসী কতৃক দলীয় নেতাকে ছুরিকাঘাত করা। শাজাহানপুর উপজেলায় বিএনপির কিছু নেতা কর্মীর নাম উল্লেখ করা হলেও তার সাথে অজ্ঞাত সংখ্যক কথা জুড়ে দিয়ে সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের মধ্যে গ্রেফতার ভীতি তৈরী করা হচ্ছে। গত কয়েক দিন ধরে গ্রেফতারের তালিকায় দলের নেতাকর্মীদের নাম শুধু বাড়ছেই। তিনি অভিযোগ করেন, জাতীয় নির্বাচনের তিন মাস আগে এসব পুলিশি কর্মকান্ডের মাধ্যমে সরকার বিএনপি নেতাকর্মীদের মাঠ ছাড়া করতে চাচ্ছে। আর এই সুযোগে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর মত একটি ভোট করতে চায়। তিনি পুলিশকে জনগণের সেবক হিসেরেব কাজ করার পাশাপাশি সরকার দলীয় এজেন্ডা বাস্তবায়ন না করারর জন্য আহবান জানান। সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক জয়নাল আবেদিন চাঁন, শোকরানা, সহ-সভাপতি আলী আজগর তালুকদার হেনা, সাবেক সভাপতি রেজাউল করিম বাদশা, মহিলা দলের সভানেত্রী লাভলি রহমান, ফজলুল বারি তালুকদার বেলাল, এ্যাড. রাফিপান্না, এ্যাড. হাফিজুর রহমান, মাহবুবর রহমান বকুল, খায়রুল বাশার, শেখ তাহা উদ্দিন নাহিন, এমআর ইসলাম স্বাধীন, এ্যাড. নাজমুল হুদা পপন, পরিমল চন্দ্র দাস, শহিদুন্নবী ছালাম, ডাঃ শাহ মোঃ শাহজাহান আলী, শাহ মোঃ মেহেদী হাসান হিমু, আব্দুল ওয়াদুদ, রুস্তম আলী, ফার্মার রফিকুল ইসলাম, মাহবুবর রহমান লুলকা, মাহবুব হাসান লেমন, খান মোঃ জাহাঙ্গীর, আব্দুর রউফ, শামিমা আকতার পলিন, আব্দুল মোমিন, আবু জিহাদ সন্তোষ, সাইমুম ইসলাম, সাইদুর রহমান কবির, প্রমুখ।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন