বগুড়া সংবাদ ডটকম (শেরপুর প্রতিনিধি কামাল আহমেদ) : ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের শেরপুরের শেরুয়া বটতলা এলাকা থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত বুধবার রাতে কয়েকটি ডাকাতি ও হত্যা মামলার আসামি নিষিদ্ধ সংগঠনের নেতা ভবানীপুর ইউনিয়নের সদস্য আব্দুর রউফ (৪০) কে বিদেশী পিস্তুল, গুলিসহ গ্রেফতার করেছে শেরপুর থানা পুলিশ।
জানা যায়, উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের ভবানীপুর গোবিন্দ গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে ওই ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য, নিষিদ্ধ সংগঠনের নেতা আব্দুর রউফ গত
বুধবার রাতে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের শেরপুরের শেরুয়া বটতলা এলাকায় গভীর রাতে ঘোরাফেরা করছিল। এসময় স্থানীয়দের সন্দেহ হলে শেরপুর থানা পুলিশে খবর দিলে শেরপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজীউর রহমানের নেতৃত্বে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হুমায়ুন কবীর, পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত বুলবুল ইসলাম সহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ওইদিন রাত আড়াইটার দিকে রউফকে আটক করে। এসময় পুলিশ তাকে তল্লাশী করে তার কোমরে রাখা বিদেশী (ইতালীয় তৈরী নাইন এমএম) একটি পিস্তল, ৪ রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিন উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।
এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে শেরপুর থানায় প্রেস ব্রিফিংয়ে শেরপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজীউর রহমান জানান, আব্দুর রউফ সর্বহারা দলের সদস্য। সে দুর্র্ধষ ছিনতাইকারী ও দাঙ্গাবাজ। রউফের বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি, ছিনতাইয়ের ঘটনায় বগুড়ার শেরপুর থানায় গত ২০১৫ সালের ১০ মে জিআর মামলা নং-১০৭/১৫ , সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ থানায় ২০০৯ সালের ৩ ফেব্রুয়ারী মামলা নং-৪, ২০১৪ সালের ১৮ডিসেম্বর দ্রুত বিচার আইনে মামলা নং-৭, একই সালে ১১ জুন সদর থানায় মামলা নং- ২৮ এবং তাড়াশ থানায় ২০১০ সালের ২৬ মার্চ জিআর মামলা নং-২১ এ চার্জসীট ভুক্ত আসামী। সে অত্যন্ত ধুর্ত প্রকৃতির নিজ এলাকার বাইরে পার্শ্ববর্তী জেলায় বিভিন্ন অপরাধমুলক কাজের সাথে জড়িত।
শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হুমায়ুন কবীর জানান, বুধবার রাত আড়াইটার দিকে রউফকে একটি ৯ এমএম বিদেশী পিস্তল সহ গ্রেফতার করা হয়। এ বিষয়ে গ্রেফতারকৃতের বিরুদ্ধে শেরপুর থানায় অস্ত্র আইনে মামলা দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলা নং-১০।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন