বগুড়া সংবাদ ডটকম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনটে জরিমানার টাকা পরিশোধ না করায় এক সিএনজি চালক ও তার স্ত্রীকে মারধর করে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার সহ সিএনজি ছিনতাই করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। এঘটনায় রবিবার বিকেলে বথুয়াবাড়ী গ্রামের সিএনজি চালক বাচ্চু সরকার বাদী হয়ে গোলজার হোসেন নামের এক বালু ব্যবসায়ী সহ ৪জনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগসূত্রে জানাগেছে, গত তিন মাস আগে বথুয়াবাড়ী গ্রামের বালু ব্যবসায়ী গোলজার হোসেনের ছেলে পলাশ তার বাড়ীর অদূরে একটি দোকানের পাশে মোটরসাইকেল রেখে চলে যায়। রাত ১২টায় কে বা কাহারা আগুন লাগিয়ে মোটরসাইকেলটি পুড়িয়ে দেয়। এঘটনায় গোলজার হোসেন পূর্ব শত্রুতার জের ধরে একই গ্রামের খোরশেদ আলমের সরকারের ছেলে সিএনজি চালক বাচ্চু সরকার ও তার ছেলে রাফিকে আসামী করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেয়। পরবর্তীতে স্থানীয় মাতব্বরা শালিশী বৈঠক বসিয়ে সিএনজি চালক বাচ্চু মিয়ার ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। গত ৩০ আগষ্ট জরিমানার টাকা ওই মাতব্বরদের হাতে দেওয়ার কথা ছিল। এদিকে ওই বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারনে জরিমানার টাকা যথাসময়ে দিতে পারেনি। রবিবার সকাল ৫টায় সিএনজি চালক বাচ্চু সরকার তার স্ত্রী লিলি বেগমকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য বগুড়ায় যাচ্ছিলেন। এসময় বথুয়াবাড়ী ব্রীজ এলাকায় গোলজার হোসেন ও তার লোকজন সিএনজির পথরোধ করে চালক বাচ্চু সরকার ও তার স্ত্রীকে বেদম মারপিট করে নগদ ৩৫ হাজার টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার সহ সিএনজিটি ছিনতাই করে নিয়ে যায়।
সিএনজি চালক বাচ্চু সরকার জানান, তিনি গোলজার হোসেনের মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় জড়িত না থাকলেও মাতব্বরদের কথা অনুযায়ি জরিমানার টাকা দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু স্ত্রীর অসুস্থতার কারনে একদিন বিলম্ব হওয়ায় সে তার লোকজন নিয়ে হামলা চালিয়ে তাকে ও তার স্ত্রীকে মারধর করে নগদ টাকা ও র্স্বণালঙ্কার সহ সিএনজিটি ছিনতাই করে নিয়ে গেছে।
তবে এবিষয়ে বালু ব্যবসায়ী গোলজার হোসেন বলেন, আমার মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় কয়েকদফা শালিশী বৈঠকের পর বাচ্চু সরকার ৪০ হাজার টাকা জরিমানা দিতে চেয়েছিল। কিন্তু তার টাকা দিতে বিলম্ব হওয়ায় তার কাছে টাকা চাইলেই সে আমার বাড়ীতে সিএনজি রেখে চলে যায়। তাদেরকে কোন প্রকার মারপিট বা টাকা লুটে নেওয়া হয়নি।
ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মো: এরফান জানান, এবিষয়ে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন