বগুড়া সংবাদ ডট কম (এম এ মতিন, কাহালু (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার কাহালু উপজেলার নারহট্র ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর কমিউনিটি ক্লিনিক তালাবদ্ধ স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন জনসাধারন। শনিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কাহালু উপজেলার নিশ্চিন্তপুর কমিউনিটি ক্লিনিক তালাবদ্ধ চিকিৎসা নিতে এসে ফিরে যাচ্ছে অনেকে।

নিশ্চিন্তপুর সোনারপাড়ার আব্দুল আলিম, আইনুল সহ অনেকে জানান, শনিবার সকাল থেকেই কমিউনিটি ক্লিনিক তালাবদ্ধ, অন্যান্য দিন সকাল থেকে কমিউনিটি ক্লিনিক খোলা থাকলেও বেলা ১ টার আগেই বন্ধ করে চলে যান কমিউনিটি ক্লিনিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রোপাইটার মোস্তাফিজুর রহমান (রাজু)। স্থানীয় পাগলাপীর মাজার ইবতেদায়ী মাদ্রাসার শিক্ষক রিয়াজুল ইসলাম সহ অন্যান্যরা জানান, দুপুরে কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধর পর অনেক রোগী এসে বসে থেকে থেকে চলে যান। নিশ্চিন্তপুর গ্রামের আবু নেছার উদ্দিন সহ অনেকে জানান, কমিউনিটি ক্লিনিকে ঔষধ নিতে আসলে প্রত্যেকের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ঔষধ দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে স্থানীয় জনসাধারন উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সু-দূষ্টি কামনা করেন। নিশ্চিন্তপুর কমিউনিটি ক্লিনিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রোপাইটার মোস্তাফিজুর রহমান (রাজু) এর সাথে কথা বলা হলে তিনি টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, জনবলের অভাবে সে কমিউনিটি ক্লিনিক তালাবদ্ধ করে মাসিক প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে গিয়ে ছিলেন। উপজেলার স্বাস্থ্য পরিদর্শক ইছাহাক আলীর সাথে কথা বলা হলে তিনি জানান, কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোপাইটার মোস্তাফিজুর রহমান অফিসে এসে ছিলেন তবে কমিউনিটি ক্লিনিক তালাবদ্ধ বিষয়ে তিনি জানেন না।

এ ব্যাপারে কাহালু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতা ডাঃ এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান এর সাথে কথা বলা হলে তিনি জানান, কমিউনিটি ক্লিনিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রোপাইটার মোস্তাফিজুর রহমান মাসিক প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেকে এসেছিলেন, নিশ্চিন্তপুর কমিউনিটি ক্লিনিকে জনবল কম থাকায় সমস্যা হচ্ছে, তবে কেউ যদি টাকা নিয়ে ঔষধ দেয় তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন