বগুড়া সংবাদ ডট কম : নাটোরের লালপুর যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে লেগুনার সংঘর্ষে ১৫ জন নিহতের ঘটনায় বাসচালক মো. শামীম হোসেন আত্মসমর্পণ করেছেন মঙ্গলবার দুপুরে বগুড়া জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যালয়ে আত্মসমর্পণ করেন। পরে শ্রমিক নেতারা তাকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন।
বগুড়া জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সামছুদ্দিন শেখ হেলাল বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে শামীম শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যালয়ে আত্মসমর্পণ করে। পরে আমি তাকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছি। তারপর পুলিশ তাকে নিয়ে যায়।
বগুড়া জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি নূর-এ-আলম সিদ্দিকী বলেন, শামীম হোসেনকে নাটোর পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।
উল্লেখ্য, শনিবার পাবনা থেকে বগুড়াগামী চ্যালেঞ্জার পরিবহনের একটি বাস কদিমচিলান এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি লেগুনাকে সামনে থেকে চাপা দেয়। এতে লেগুনার সকল যাত্রী ছিটকে পড়লে চাপা পড়ে দুই শিশু, ছয় নারীসহ ১০ জন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। পরে হাসপাতালে তিনজন ও এরপর আরও একজন মারা যান এবং গভীর রাতে আরেকজনের মৃত্যু হয়। ওই দুর্ঘটনার পর লালপুর থানায় মামলা করেন বনপাড়া হাইওয়ে পুলিশের এএসআই ইউসুফ আলী।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন