শেরপুর পৌরসভার ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ২৫ কোটি ৭৭ লক্ষ ২০ হাজার টাকার বাজেট ঘোষনা করা হয়েছে। এরমধ্যে বিভিন্ন দপ্তর হতে প্রাপ্ত অনুদান ও ট্যাক্স সহ যে পরিমান অর্থ আয় ধরা হয়েছে, একই পরিমান অর্থ ব্যয়ও ধরা হয়েছে।
আজ ৩০ জুলাই সোমবার সকাল ১১ টায় শেরপুর পৌরসভায় এই বাজেট পেশ করেন পৌরমেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আব্দুস সাত্তার। তিনি বাজেট পেশের পূর্বে এক আলোচনা সভায় বলেন, জুন মাসে রাজনৈতিক সহ বিভিন্ন কারনে বাজেট পেশ করতে পারেননি, তাই বিলম্বে এই বাজেট অধিবেশনের আয়োজনা করা হয়েছে। তিনি বাজেট বক্তৃতায় জানান, শেরপুর পৌরসভায় বিভিন্ উন্নয়ন মুলক কর্মকান্ড অব্যাহত রয়েছে। তারই ধারাবাহিকতয় বিকাল বাজার ৫তলা বিশিষ্ট মার্কেট নির্মানের কাজ খুব দ্রুত শুরু করা হবে। এ সময় তিনি ২৫কোটি ৭৭ লক্ষ ২০ হাজার টাকার বাজেট ঘোষনা করেন। আয়ের খাত হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন ট্যাক্স, রেইটস, ফিস, ইজারা বিবিধ বাবদ ৫ কোটি ৭৫ লক্ষ ২০ হাজার, উন্নয়ন সহায়তা মুঞ্জুরী বাবদ ২ কোটি ৫০ লক্ষ, মিউনিসিপ্যাল গভার্নেস সার্ভিসেস প্রকল্প (ও এন্ড এম) এমজিএসপি ৫২ লক্ষ, মিউনিসিপ্যাল গভার্নেস সার্ভিসেস প্রকল্প এমজিএসপি ১০ কোটি, জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাষ্ট ফান্ড ৫ কোটি, পানি সরবরাহ ড্রেনেজ ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ২ কোটি টাকা। এছাড়া ব্যায় ধরা হয়েছে সম্মানী ভাতা, বেতনভাতা, আনুতোষিক, বিদ্যুত বিল, নলকুপ ও বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি ৫কোটি ৬৯ লক্ষ ২৫ হাজার, উন্নয়ন সহায়তা মঞ্জুরী ব্যয় ২ কোটি ৫০ লক্ষ, মিউনিসিপ্যাল গভার্নেস সার্ভিসেস প্রকল্প (ও এন্ড এম) এমজিএসপি ৫২ লক্ষ, মিউনিসিপ্যাল গভার্নেস সার্ভিসেস প্রকল্প এমজিএসপি ১০ কোটি, জলবায়ু পরিবর্তন ট্রাষ্ট ফান্ড ৫ কোটি, পানি সরবরাহ ড্রেনেজ ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ২ কোটি, গুরুত্বপূর্ন নগর উন্নয়ন অবকাঠামো ৫ লক্ষ ৯৫ হাজার টাকা। এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন, সাপ্তাহিক আজকের শেরপুর পত্রিকার সম্পাদক সাইফুল বারী ডাবলু, পৌরসভার প্যানেল মেয়র নাজমুল আলম খোকন, সংরক্ষিত আসনের মহিলা কাউন্সিলর লায়লা আরজুমান, কাউন্সিলর রেজাউল করিম সিপ্লব।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন