বগুড়া সংবাদ ডট কম (রশিদুর রহমান রানা, শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় স্বামী পরিত্যাক্ত মেয়েকে কু-প্রস্তাব, বাঁধা দেওয়ায় মেয়ের বাবা ও ভাইকে বেধর মারধর ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি উপজেলার ময়দানহাট্টা ইউনিয়নের বুজরুক শোকড়া মারী গ্রামে এব্যাপারে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগের সূত্রে জানা যায় ময়দানহাট্টা ইউনিয়নে আলতাব হোসেন এর মেয়ে আরজিনা বেগমের পার্শ্ববর্তী গোকর্ন গ্রামে পারিবারিক ভাবে জৈনক সবুজ এর সাথে বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকে একই গ্রামের বাবু মিয়ার ছেলে ছাদ্দাম (২৪) বিভিন্ন ভাবে তাকে কু প্রস্তাব দিয়ে আসছিল।

এ ঘটনার জের ধরে তাদের স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া বিবাদের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। বিবাহ বিচ্ছেদের পর থেকে আরর্জিনা তার বাবার বাড়িতে বেশ ভালই দিন কাটাচ্ছিল। এর পর আবারো ছাদ্দাম তাকে বিভিন্ন ভাবে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল এবং রাস্তা ঘাটে বিরক্ত করে আসছিল।

কু প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক পর্যায়ে গত ২৭/৭/২০১৮ইং রোজ শুক্রবার আরজিনা প্রতিদিনের মত খাওয়া দাওয়া শেষে তার মাকে সঙ্গে নিয়ে ঘুমাতে যায়। সেই রাতেই আনুমানিক ৩ ঘটিকার সময় ছাদ্দাম তার ঘরে দরজায় ডাকা ডাকি করে কিন্তু তার কোন সাড়া না পেয়ে তার ঘরের জানালা ভেঙ্গে তার গায়ে হাত দিলে সে চিৎকার করলে পাশে থাকা তার মা শুনে ছাদ্দামের হাত টেনে ধরে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে হাত টেনে বের করে পালিয়ে যায়।

সকালে আরর্জিনার বাবা ও ভাই শাহারুল বিষয়টি তার পরিবারকে জানাতে গেলে পরিবারের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে তাদেরকে বেধরক মারধর করে। এতে শাহারুল এবং তার বাবা আহত হলে তাদেরকে শিবগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ডাক্তার ছেড়ে দেয়।

এ ব্যাপারে মেয়ের বাবা থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করে। তদন্ত অফিসার এস আই আবু সাইদ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন যে, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন