বগুড়া সংবাদ ডট কম : ২৯ জুলাই “বিশ্ব বাঘ দিবস। বাঘ সৃষ্টি জগতের এক অপার বিষ্ময়কর সৃষ্টি। প্রকৃতির এক বিশেষ অলংকার, প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষায় বাঘের রয়েছে গুরুত্বপূর্ন অবদান। বাঘ বাংলাদেশের জাতীয় প্রাণি। আমাদের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যও প্রতীক। আমাদের গৌরব। বিশ্ব বাঘ দিবস উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের পরিবেশবাদী সংগঠন “টিম ফর এনার্জি এন্ড ইনভায়রনমেন্টাল রিসার্চ” (তীর) সরকারি আজিজুল হক কলেজ বগুড়ার উদ্যগে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় ।
বিশ্ব বাঘ দিবসের শোভায়াত্রা ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সরকারি আজিজুল হক কলেজ বগুড়া এর অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ শাহজাহান আলী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সরকারি আজিজুল হক কলেজ বগুড়া উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ ফজলুর রহমান। “তীর” এর সভাপতি জনাব মোঃআরাফাত রহমান, সাধারন সম্পাদক মোঃ জাহিদুল ইসলাম সহ তীরের সদস্যবৃন্দ্র ও অত্র কলেজের শিক্ষার্থীবৃন্দ্র।
আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন “তীর” এর সভাপতি জনাব মোঃআরাফাত রহমান। প্রধান আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন ড.এস এম ইকবাল, সাবেক সভাপতি বিবিসিএফ ও সহকারি বাঘ গবেষক জনাব এসএম ইমাম আবেদ আল হাদী,ওয়াইল্ড টিম। আলেচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন “তীর” এর
উপদেষ্টা মন্ডলীর মধ্যে জনাব মোঃ আঃমান্নান, জনাব মোঃ মতিউর রহমান, জনাব মোখলেছুর রহমান মুকুল, জনাব জহিরুল ইসলাম, জনাব আরিফুর রহমান, জনাব শফি মাহমুদ, জনাব মোঃ মিজানুর রহমান সহ অত্র কলেজের শিক্ষকবৃন্দ। “টিম ফর এনার্জি এন্ড ইনভায়রনমেন্টাল রিসার্চ (তীর) এর সাধারন সম্পাদক মোঃ জাহিদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আশিকুল ইসলাম, যৃগ্ম সম্পাদক মোছাঃ চৈতী খাতুন, দপ্তর সম্পাদক বরকত সহ সংগঠনের হাদিসুর, জাহিদ, রিফাত, এরশাদ, হাসিব, মুকিম, হোসেন, আহসান, এশা হোসেন, আহসান, মাসুদ রানা, আল আমিন, তৌফিক, সহ অত্র কলেজের ছাত্রছাত্রী বৃন্দ।
বন বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, ২০০৪ সালের গবেষণায় সুন্দরবনে বাঘ ছিল ৪৪০টি। ২০১৫ সালে ক্যামেরা ট্রাপিংয়ের মাধ্যমে বাঘ গণনা করা হয়। এতে ১০৬ টি বাঘের নমুনা পাওয়া যায়। ২০১৬ সালে আমেরিকার দাতা সংস্থা ইউএসএআইডি ২০১০ সালের জানুয়ারিতে থাইল্যন্ডের হুয়ানে অনুষ্ঠিত হয় টাইগার রেঞ্জ দেশ সমূহের ‘এশিয়া মিনিস্ট্রয়াল কনফারেন্স’। সেখান থেকে সিদ্ধান্ত হয় প্রতি বছর ২৯ জুলাই বিশ্ব বাঘ দিবস পালিত হবে। সম্মেলনে বাঘ সংরক্ষণে নয় দফা পরিকল্পনা গৃহীত হয়। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ২০২০ সালের মধ্যে বাঘের সংখ্যা দ্বিগুণ করা।
আলোচনা সভায় উপস্থিত অতিথি ও আলোচক বৃন্দ্র বাঘ দিবসের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে গুরুত্বপূর্ন আলোচনা করেন।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন