বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : বগুড়ার শাজাহানপুরে মাদক সহ গ্রেফতারের পর থানায় এনে রাজিব (৩০) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে মোটা অংকের সামারির পর ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। অপরদিকে গ্রেফতারের বিষয়টি সাংবাদিকদের জানানোর অপরাধে জুয়েল (৩২) নামে এক সিএনজি অটোটেম্পু চালককে থানার ভিতর সবার সামনে বেদম মারপিট করেছে থানার সামারি অফিসার এএসআই রেজওয়ান।
জানাগেছে, মঙ্গলবার সন্ধার পর উপজেলার খরনা বাজারের জনৈক জুয়েল নামে এক ব্যক্তির কম্পিউটার দোকানের সামনে থেকে পারতেখুর পূর্বপাড়ার খলিলুর রহমানের পুত্র কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী রাজিব (৩০) কে গাজা সহ গ্রেফতার করেন থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলম। গ্রেফতারের পর থানায় এনে নামধারী এক সাংবাদিকের তদবিরে মোটা অংকের সামারির পর গভীর রাতে তাকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। হাতে গোনা দুই এক জন নামধারী সাংবাদিক প্রায়ই গভীর রাত পর্যন্ত থানায় অবস্থান করে। এরা পুলিশের সোর্স হিসেবে আসামী ধরে দেয়া এবং সামারির মাধ্যমে আসামী ছেড়ে দেয়ার কাজ করে থাকে।
অপরদিকে গ্রেফতারের বিষয়টি অপর সাংবাদিকদের জানানোর অপবাদে জুয়েল (৩২) নামে থানারই এক সিএনজি চালিত অটোটেম্পু চালককে থানার ভিতর পুলিশ ও সাংবাদিকের সামনে বেদম ভাবে মারপিট করে সামারি অফিসার নামে পরিচিত থানার এএসআই রেজওয়ান। প্রায়ই আসামী ধরা এবং ছাড়ার কারণে এএসআই রেজওয়ান সামারি অফিসার নামে পরিচিত।
স্থানীয় সচেতন ব্যক্তিরা জানান, রাজিব বহু দিন যাবত মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। বহুবার পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে। একাধিক মামলাও রয়েছে। তার মাদক ব্যবসার কারণে এলাকায় মাদক ছড়িয়ে পরেছে। গ্রেফতারের পর অর্থের বিনিময়ে এভাবে ছেড়ে দিলে সমাজ থেকে মাদক নির্মূল করা সম্ভব হবে না।
থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, বিষয়টি জানা ছিল না। সকালে সাংবাদিকদের মাধ্যমে জানতে পেরেছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন