বগুড়া সংবাদ ডট কম (ইমরান হোসেন ইমন, ধুনট (বগুড়া) থেকে: জলবায়ু পরিবর্তনের কারনে বেড়েছে তাপমাত্রা। তাই শ্রাবণ মাসেও বৃষ্টির দেখা নেই। তাই তীব্র তাপদাহে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে জনজীবন। এদিকে যেমন ঘন ঘন লোডশেডিং তেমনি দিনে ও রাতে প্রচন্ড গরম। এরইমাঝে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় দেখা মেলে বৃষ্টির।

হঠাৎ ১৫ মিনিটের টানা বৃষ্টিতে স্বস্তি মেলে ধুনট উপজেলাবাসীর। ক্ষনিকের জন্য শীতল হাওয়া দোলা দিয়ে মনকে প্রফুল্ল করে তোলে নিমিষেই। এরপর আধাঘন্টা পর থেকে টিপটিপ বৃষ্টি শীতলতার পরশ ছুঁয়ে দেয়।

ধুনট বাজারের ভ্যান চালক আব্দুর রহমান জানান, গত কয়েক দিনের তীব্র গরমে তাদের মতো খেটে খাওয়া মানুষদের চরম কষ্ট পোহাতে হয়েছে। খরতাপের কারনে ভ্যান নিয়ে বের হতেও পারেন নাই। তাই হঠাৎ বৃষ্টিতে একটু স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেছেন বয়সের ভারে নুয়ে পড়া এই বৃদ্ধ ভ্যান চালক আব্দুর রহমান।

চৌকিবাড়ী গ্রামের প্রান্তিক কৃষক আলাউদ্দিন জানান, আষাঢ় মাসের প্রথম দিকে মাঝে মধ্যে ভারী বৃষ্টিপাত হলেও আষাঢ়ের শেষ থেকে শ্রাবণ মাসের শুরুতে বৃষ্টিপাত না হওয়ায় ফসলী জমি শুকিয়ে চৌচিড় হয়ে গেছে। তাই আমন ধান চাষ নিয়ে কৃষকেরা দুঃচিন্তায় রয়েছে। তবে ক্ষনিকের বৃষ্টিতে কৃষকের মনে প্রফুল্ল দেখা দিয়েছে।

ধুনট উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের ঈমাম মাওলানা আব্দুল আলিম বলেন, তীব্র গরমে মানুষ অতিষ্ট হয়ে উঠেছে। তাই শুক্রবার বাদ জুম্মা আল্লাহ্পাকের কাছে বৃষ্টির জন্য দোয়া করা হয়েছে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন