bograsangbad_Logoবগুড়া সংবাদ ডট কম (সোনাতলা সংবাদদাতা মোশাররফ হোসেন) :  সোনাতলায় ঋণ (দাদনের টাকা) গ্রহণকারীর মামলায় দাদন ব্যবসায়ী শিমুল আকন্দসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। থানায় দায়েরকৃত মামলার বাদী চরপাড়া গ্রামের তমিজ উদ্দিনের ছেলে মোঃ শাহিদুল ইসলাম (স্কুল শিক্ষক) মামলায় উল্লেখ করেন ২০০৮ সালে সোনাতলা উপজেলার কাবিলপুর গ্রামের মৃত ছামস উদ্দিন আকন্দের ছেলে শিমুল আকন্দের কাছ থেকে দুইবারে মোট একলাখ ষাটহাজার টাকা কর্জ হিসেবে গ্রহণ করা হয়। টাকার জামানত হিসেবে ওই সময় ৬টি ১০০ টাকা মূল্যের ননজুডিসিয়াল সাদা স্ট্যাম্পে ও চেক বইয়ের ১০টি পাতায় (টাকার পরিমাণ ফাঁকা রেখে) আগাম স্বাক্ষর করে নেয়। আগাম স্বাক্ষর করা চেক দিয়ে প্রতিমাসে তার দোকানের কর্মচারীর মাধ্যমে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে। ২০০৮ সালের ৫ মার্চ থেকে ২০১৭ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শিমুল আকন্দ তার সোনাতলার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ৯টি চেক বইয়ের ৯০টি চেকের পাতায় শাহিদুল ইসলামের স্বাক্ষর নিয়েছে শিমুল আকন্দ। চেকগুলো দিয়ে এ পর্যন্ত ১৬ লাখ ৭৭ হাজার ৯৮১ টাকা উত্তোলন করে আত্মসাত করেছে। ২০/১/১৭ তারিখে শাহিদুল ইসলাম স্বাক্ষরকৃত ননজুডিসিয়াল স্ট্যাম্পগুলো ও চেকবইগুলো ফেরত চাইলে তার কাছ থেকে শিমুল আকন্দ আরও দুইলাখ টাকা দাবী করে। না দিলে মামলায় মিথ্যা জড়ানো ও জীবন নাশের হুমকি দেয় বলে মামলায় উল্লেখ রয়েছে। এ ব্যাপারে শিমুল আকন্দ ও তার কর্মচারী জুলফিকার মাহমুদ লিটনের বিরুদ্ধে গত সোমবার সোনাতলা থানায় মামলা (মামলা নং ৫) দায়ের হয়। মামলায় অভিযুক্ত আসামীদ্বয়কে পুলিশ সোমবার দিনগত রাতে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। অপর একটি মামলায় (মামলা নং ১৭) ওই রাতে বজলু ও আব্দুল হান্নান নামে ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ মামলারও আসামী শিমুল আকন্দ।

 

 

 

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন