বগুড়া সংবাদ ডট কম (কাহালু প্রতিনিধি এম এ মতিন) : কাহালুতে স্থানীয় এক পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ফটোকপি বিতরণকে কেন্দ্র করে দুই শিক্ষকের মাঝে মারপিটের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত হয় দুই শিক্ষক। এলাকাবাসী জানায় কাহালুর বীরকেদার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুর রউফের চরিত্র হন করে বগুড়ার এক দৈনিক পত্রিকায় গত শুক্রবার সংবাদ প্রকাশিত হয়। উক্ত বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আতাউর রহমান পত্রিকায় প্রকাশিত এ সংবাদের ফটোকপি বিদ্যালয়ের ছাত্র/ছাত্রী ও এলাকাবাসীর মাঝে বিতরন করেন। গত শনিবার সাড়ে ৯ টায় বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে প্রকাশিত সংবাদের ফটোকপি বিতরন নিয়ে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে শিক্ষক আব্দুর রউফ অপর শিক্ষক আতাউরকে লক্ষ্য করে গ্লাস ছুড়ে মারলে আতাউর পাল্টা চেয়ার ছুড়ে মারে আব্দুর রউফকে। এ ঘটনায় উভয় শিক্ষক আহত হয়। আকষ্মিক ভাবে কিছুক্ষনের মধ্যে উভয় পক্ষের লোকজন আসলে চারদিকে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। আতংকে ছাত্র/ছাত্রীরা বিদ্যালয় ত্যাগ করে। সংবাদ পেয়ে কাহালু থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। উক্ত ঘটনায় উভয় পক্ষের মধ্যে এখনও পর্যন্ত চরম আতংক বিরাজ করছে যে কোন সময় আইন শৃংখলার অবনতি হতে পারে বলে এলাকাবাসী মন্তব্য করেন।
উল্লেখ্য, প্রায় ২ বছর হলে সহকারি শিক্ষক আব্দুর রউফ উক্ত বীরকেদার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন গত ০১/০৭/১৮ ইং তারিখে চলতি দায়িত্বে মোহাম্মদ আব্দুল জলিল সরকার প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। কিন্তুু ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্বে থাকা সহকারি শিক্ষক আব্দুর রউফ পুনরায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালনের জন্য বিভিন্ন নেতৃবৃন্দের সুপারিশকৃত একটি লিখিত আবেদন জেলা শিক্ষা অফিসার বরাবরে জমা দেন। এ ব্যাপারে অত্র বিদ্যালয়ের এডহক কমিটির সভাপতি ও কাহালু উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার শাহ আবু মোঃ রায়হান জানান বিয়টি আমি শুনেছি, রোববার অফিস খুললে তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন