বগুড়া সংবাদ ডট কম (আনোয়ার হোসেন, নামুজা (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়া সদর উপজেলার নামুজা ইউপির ভান্ডারী পাড়া গ্রামে মা-মেয়ে জোরা খুনের এক আসামি দীর্ঘ ১১ মাসও গ্রেফতার না হওয়ায় জনমনে দেখা দিয়েছে নানা প্রশ্ন।

জানা যায়, নামুজা ইউনিয়নের ভান্ডারী পাড়া গ্রামে হাফিজার তালুকদরের বাড়ীর কেয়ার টেকার মোছাঃ কাপিয়া (৩৩) ও শিশু কন্যা মোছাঃ আয়শা (৭) এর লাষ বিগত ২৯/০৮/২০১৭ তারিখ বিকাল ৪টায় বগুড়া সদর থানার পুলিশ উদ্ধার করে। উক্ত ঘটনায় কাপিয়ার ভাই মমিন বাদী হয়ে বগুড়া সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বগুড়া সদর থানার ওসি তদন্ত আসলাম ভান্ডারীপাড়া গ্রামের লিটন ও রেজাউলকে গ্রেফতার করে। আদালতে আসামি রেজাউল এর স্বীকার উক্তি মোতাবেক একই গ্রামের ইউছুব আলী ওই হত্যা মামলার আসামি। ইউছুব আলী দীর্ঘ দিন যাবৎ পালাতক থাকায় এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত মামলার তদন্ত রির্পোট আদালতে জমা হয়নি। এতে করে জনমনে দেখা দিয়েছে নানা প্রশ্ন।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন