বগুড়া সংবাদ ডটকম (শেরপুর প্রতিনিধি কামাল আহমেদ)  বগুড়ার শেরপুরের গোপালপুর এলাকায় গত ৬ দিন ধরে করতোয়া নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে গোপালপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করা হয়েছে। এতে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এমনকি চিত্ত বিনোদন থেকেও বঞ্চিত হচ্ছে তারা। এঘটনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে মৌখিক ভাবে জানালেও কোন ব্যবস্থা নেননি বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামে রাস্তার ব্লক দেয়ার জন্য একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কয়েক সপ্তাহ আগে থেকে গোপালপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করে ব্লক তৈরি করে স্তুপ দিয়ে রেখেছে এবং গত মঙ্গলবার থেকে অবাধে করোতোয়া নদী থেকে বালু উত্তোলন করে মাঠের মাঝখানে রাখে।

এতে করে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এমনকি খেলাধুলা সহ চিত্ত বিনোদন থেকেও বঞ্চিত রয়েছে তারা। তাছারা গত কয়েক সপ্তাহ ধরে শিক্ষার্থীদের কোন প্রকার জাতীয় সংগীত গাওয়ানো হয়নি। এ ঘটনায় গত ৬দিন ধরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সিরাজুল ইসলামকে মৌখিকভাবে জানালেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এতে সচেতন মহলের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে গোপালপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোছাঃ আঞ্জুমান আরা খানম জানান, এভাবে মাঠ দখল করে রাখায় আমরা নানা সমস্যায় জর্জরিত। উপর মহলে বিষয়টি জানানো হলেও তারা কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না।

এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল কাইয়ুম বলেন, এমন ঘটনার অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মোঃ সিরাজুল ইসলাম জানান, বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ থেকে কোন প্রকার অভিযোগ না পাওয়ায় কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। তবে করতোয়া নদী থেকে এভাবে বালু উত্তোলনের কোন এখতিয়ার আছে কিনা তা জানতে চাইলে তিনি এরিয়ে যান।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন